কুষ্টিয়ায় ৬ ফুট দাঁড়িওয়ালা লাদেন

লালন সাঁইয়ের পূণ্যভূমি কুষ্টিয়ায় দীর্ঘ ৬ ফুট দাঁড়িওয়ালা একব্যক্তির সন্ধান মিলেছে। মাহতাব উদ্দিন লাদেন নামের ৭০ বছর বয়সী ওই দাঁড়িভক্তের বসবাস জেলার দৌলতপুরে। লাদেন জানান, কেউ চায় গাড়ি, কেউ চায় বাড়ি আর আমি চেয়েছি লম্বা দাঁড়ি। চাওয়া থেকে পাওয়া, বর্তমানে তার দাড়ির দৈর্ঘ পাক্কা ছয় ফুট। আর এই দীর্ঘ দাঁড়ির সুবাদে মানুষটি পেয়েছেন ব্যাপক পরিচিতি।

জানাযায়, ২০০২ সাল থেকে দাঁড়ি কাটানো বন্ধ ক’রে দেন তিনি। এর ফলে তা বাড়তে বাড়তে ৬ ফুটে ঠেকেছে। আর এখানেই তার বিশেষত্ব! লম্বা দাঁড়িওয়ালা হিসেবে এলাকায় তুমুল জনপ্রিয় লাদেনের দাবি, তিনিই বাংলাদেশের সবচে লম্বা দাঁড়ির মালিক। চান গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ডের স্বীকৃতি।

বয়সে কাবু না হওয়া এই বৃদ্ধ
স্কুলজীবনে ভালো ফুটবলার ছিলেন। নানা কারণে তখন থেকেই ব্যাপক জনপ্রিয় তিনি। জানালেন,
বাপ-দাদার মুখভর্তি দাঁড়ি দেখে লম্বা দাঁড়ি রাখায় অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন।

নিয়মিত দাঁড়ির যত্ন নেন লাদেন। সপ্তাহে একদিন শ্যাম্পু দিয়ে তা পরিষ্কার করেন। দাঁড়ির যত্নে সহায়তা করেন তার স্ত্রী আশানুর বানু। পরম যত্নে নিয়মিত দাঁড়ির খোপাও করে দেন এবং বলেন যতদিন বাঁচবেন ততদিন যন্ত করবেন তার স্বামীর দাঁড়ির।

স্থানীয়রা জানায়, প্রতিদিনই দূরদূরান্ত থেকে অনেকেই দেখতে আসে লম্বা দাঁড়ির এই মানুষটিকে। বিষয়টি তারা উপভোগই করে।এলাকাবাসী সহ সবাই আশা করেন লাদেনের এই লম্বা দাঁড়ি গিনেজ বুক অব ওয়ার্ল্ডের স্বীকৃতি পাবে।

এত বড় দাঁড়ির মানুষ আগে কখনো দেখেননি দৌলতপুর আড়িয়ার ইউপি চেয়ারম্যান সাঈদ আনছারী বিপ্লব। তিনিও চান মাহাতাব উদ্দিন লাদেনের স্বীকৃতি। না ছেটে সংরক্ষণ করলে লাদেনের দাঁড়ি ১০ ফুট ছাড়িয়ে যেত বলেও জানান তিনি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author