আইসিইউ দূরের কথা রাজধানীর কোভিড হাসপাতালে শয্যা পাওয়াই এখন নিয়তির বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। মুমূর্ষ রোগীদের হাসপাতালের বারান্দায় চলছে সেবা। চাপ বাড়ায় রোগীর অবস্থা খুব বেশি খারাপ না হলে মিলছে না হাসপাতালে ভর্তির অনুমতি। করোনার জন্য নির্ধারিত রাজধানীর সরকারী হাসপাতালে শয্যার পাশপাশি আইসিইউ ফাঁকা নেই একটিতেও।

বেলা বেগম। তীব্র শ্বাসকষ্ট আর জ্বর নিয়ে এসেছেন রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে। দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করেও মিলছে না একটি শয্যা। হাসপাতালের বারান্দায় অক্সিজেন দিয়ে চলছে সেবা কার্যক্রম।

শুধু বেলা বেগমেই না, হাসপাতালের বারান্দায় তার মত এ চিত্র এখন নিয়মিত। শিশু থেকে বৃদ্ধ সংকটাপন্ন অনেককেই একটি শয্যার জন্য অপেক্ষা করতে হচ্ছে ঘন্টার পর ঘন্টা। আইসিইউ না পেয়ে অনেকেই ছুটছেন বেসরকারী হাসপাতালের দিকে।

করোনার সংক্রমণ হারের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে
দুর্ভোগ। বাড়ছে এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতালে রোগী নিয়ে স্বজনদের ছোটাছুটি।

রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে
নির্ধারিত ৩শ বেডই রোগীতে পূর্ণ। ভর্তি রোগীর সংখ্যা এখন প্রায় চার শতাধিক। রোগীর অবস্থা খুব
খারাপ না হলে মিলছে না ভর্তির অনুমতি। একই চিত্র রাজধানীর সব করোনা ডেডিকেটেড হাসপাতালে।  

মহাখালী ডিএনসিসি কোভিড হাসপাতালের
পরিচালক জানান, রোগীর চাপ বাড়ায় সবাইকে ভর্তি করা কঠিন হয়ে পড়ছে
আগামী ৪ তারিখের মধ্যে
৫০০ বেড সেন্ট্রাল অক্সিজেনের আওতায় আনার আশ্বাস দেন তিনি

এদিকে, ঈদের পর রাজধানীর সব হাসপাতালে
বেড়েছে নমুনা পরীক্ষার চাপ

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author