কোরবানী ঈদ ঘিরে পশুর নতুন
চামড়া সংরক্ষনে সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। তবে ট্যানারি মালিকরা
আশানুরুপ পাওয়ানা টাকা এখনো শোধ না করায় চামড়া কেনা নিয়ে শঙ্কার কথা জানিয়েছেন আড়ত
মালিকরা। চামড়া সংরক্ষনে পর্যাপ্ত লবন মজুদ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন কাঁচা চামড়া
আড়ত মালিকরা। লবনের দামও নাগালের মধ্যে আছে বলেও জানান তারা।

ঈদ উল আযহাকে ঘিরে গত কয়েকবছর ধরেই কোরবানির পশুর চামড়া বাজারে চলছে অস্থিরতা। পরিস্থিতি সামাল দিতে সরকারের নেয়া নানা উদ্যোগ তেমন কোন কাজে আসেনি। দাম না পেয়ে পঁচিয়ে ফেলেছে হাজার হাজার চামড়া।

বাজার স্থিতিশীল রাখতে এরইমধ্যে
চামড়ার দাম নির্ধারন করে দেয়া হয়েছে। নতুন চামড়া সংরক্ষনে পর্যাপ্ত লবন মজুদ করেছে
কাঁচা চামড়া আড়ত মালিকরা। চলছে ধুয়া মোছার কাজও।

এবছর চাহিদার চেয়ে অতিরিক্ত
লবন মজুদ রয়েছে বলে আশ্বস্ত করেন চামড়া ব্যবসায়ী নেতারা। তবে অর্থের সঙ্কটে
পর্যাপ্ত চামড়া কেনা নিয়ে কিছুটা শঙ্কা প্রকাশ করেছেন তারা।

নির্ধারিত দামেই চামড়া
কেনাবেচা হবে আশ্বস্ত করে কোন ধরনের সিন্ডিকেট করা হবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন
তারা।

মৌসুমি ব্যবসায়ীদের যাচাই করে
চামড়া কেনার পরামর্শ দিয়েছেন ব্যবসায়ী নেতারা। 
কারো অবহেলায় চামড়া যাতে নষ্ট না হয় সেদিকে নজর দেয়ার আহ্বান জানান তারা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author