তাজিকিস্তানে পালালো হাজারের বেশি আফগান সেনা

আফগানিস্তানে তালেবানের সঙ্গে লড়াইয়ে টিকতে না পেরে এক হাজারেরও বেশি  সেনা সদস্য প্রতিবেশি দেশ তাজিকিস্তানে পালিয়ে গেছে।

তাজিকিস্তানের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘সেনারা জীবন বাঁচাতে’ পিছু হটে গিয়ে সীমান্ত পেরিয়ে এসেছে। আফগানিস্তান থেকে বিদেশি সেনারা চলে যেতে থাকার মধ্যে তালেবানের দাপট বাড়তে শুরু করেছে। একের পর এক জেলা তালেবানের দখলে চলে যাচ্ছে। বিশেষ করে সম্প্রতি কয়েক সপ্তাহে দেশের উত্তরে তালেবানের উল্লেখযোগ্য অগ্রগতি হয়েছে।

প্রাণ বাঁচাতে প্রায় ১ হাজার আফগান সেনা সীমান্ত অতিক্রম করেছে বলে জানানো হয়েছে বিবৃতিতে। মানবতার খাতিরে তাজিক কর্তৃপক্ষ এই সেনাদের তাদের ভূখন্ডে ঢুকতে দিয়েছে। বিবিসি আরও জানায়, গত তিদনদিন ধরেই আফগান সেনারা তাজিকিস্তানে পালাচ্ছে। সব মিলে এ পর্যন্ত ১ হাজার ৬০০ সেনা সীমান্ত পেরিয়েছে।

আফগানিস্তানের বাদাখশান ও তাখার প্রদেশে তালেবান যোদ্ধারা দ্রুতই অগ্রগতি অর্জন করছে। তালেবান যোদ্ধারা এখন ওই অঞ্চলের বেশিরভাগই দখলে নিয়ে নিয়েছে। তাছাড়া, পাকিস্তান-আফগানিস্তান সীমান্তে অন্তত একটি আফগান সেনাফাঁড়ি তালেবান দখল করেছে বলেও খবর এসেছে।

সোমবার রয়টার্স বার্তা সংস্থাকে ঊধ্র্বতন এক আফগান কর্মকর্তা বলেন, “তালেবান সব রাস্তা বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে। এখন এইসব মানুষদের সীমান্ত পেরোনো ছাড়া আর কোথাও যাওয়ার উপায় নেই।” বাদাখশান প্রদেশের পার্লামেন্টের সদস্য জাবিহুল্লাহ আতিক জানান, এই সেনারা বিভিন্ন পথ দিয়ে পালিয়ে গেছে।

আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনি বেশ জোরের সঙ্গেই বলেছিলেন, আফগান নিরপত্তা বাহিনী জঙ্গিদের দূরে ঠেলে রাখতে পুরোপুরি সক্ষম। কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে ভিন্ন চিত্র। আরও অনেক সেনাই লড়াই থেকে বাঁচতে পাকিস্তান এবং উজবেকিস্তানে আশ্রয় খুঁজছে বলেও খবর পাওয়া যাচ্ছে।

এদিকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বাইডেন আফগানিস্তান থেকে সব বিদেশি সেনা পুরোপুরি প্রত্যাহার করার সময়সীমা নির্ধারণ করেছেন এবছর ১১ সেপ্টম্বরে ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারে হামলার ২০ তম বর্ষপূর্তির দিনে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author