সীমিত পরিসরে পালিত হবে পবিত্র হজ

শুধুমাত্র টিকা নেয়া ৬০ হাজার সৌদি নাগরিক ও অভিবাসী পাবেন হজে অংশ নেয়ার সুযোগ। করোনা মহামারির কারণে টানা দুই বছর সৌদি আরবের বাইরে থেকে কেউ হজ্ব করতে যেতে পারছেন না।

সৌদি নাগরিক ও সেখানে বসবাসকারী ৬০ হাজার মানুষকে এবার হজ্বের জন্য অনুমতি দেয়া হয়েছে। এতে বলা হয়েছে শুধু ১৮ থেকে ৬৫ বছর বয়সীরাই হজ্ব করতে পারবেন তবে তাদের অবশ্যই করোনার টিকা দেয়া থাকতে হবে।

১৯৩২ সালে সৌদি আরব প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রায় ৯০ বছরের ইতিহাসে হজ বন্ধ হয়নি। প্রতিষ্ঠার আগে নানা কারণে প্রায় ৪০ বার আংশিক ও পূর্ণভাবে হজ বন্ধ করা হয়। তবে দেশটি প্রতিষ্ঠার পর টানা দুই বছর সীমিত আকারের হজ ইতিহাসে এবারই প্রথম। 

সারা বিশ্ব থেকে প্রতি বছর ২৫ থেকে ৩০ লাখ মুসলমান সৌদি আরব যান। গত বছর ৬১ হাজার বাংলাদেশি নিবন্ধন করেও হজ করতে পারেন নি। এছাড়া গত বছর এপ্রিলে সামাজিক দূরত্ব মেনে এক হাজারেরও কম সংখ্যাক সৌদি নাগরিক ওমরাহ পালন করেন।

হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-হাবের মহাসচিব জানান, সৌদি আরব সরকার হজে যাওয়ার সুযোগ দিতে না পেরে দুঃখ প্রকাশ করেছে।

সৌদি আরবে এ পর্যন্ত সাড়ে সাত হাজারের বেশি মানুষ করোনায় মারা গেছেন।  শনাক্ত হয়েছে চার লাখ ৬৩ হাজারের বেশি মানুষের। বৈশ্বিক মহামারিতে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতেই হজ বন্ধ করার সিদ্ধান্ত সৌদি সরকারের। 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author