রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারের নাগরিকত্ব দিতে এবং স্বদেশে প্রত্যাবাসনে জাতিসংঘ জোরালো ভূমিকা পালন করে যাবে। এ ব্যাপারে মিয়ানমার সরকারের ওপর চাপ সৃষ্টি অব্যাহত আছে।

বুধবার (২৬ মে) জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৫তম অধিবেশনের সভাপতি ভলকান ভজকি কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে গিয়ে তাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন।

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে রোহিঙ্গাদের অধিকার নিয়ে আলোচনাও অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি। পরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত ক্যাম্প পরিদর্শন করে রোহিঙ্গাদের মানবিক সহায়তার জন্য বাংলাদেশের প্রশংসা করেন ভলকান ভজকি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সচিব শাব্বির আহমেদ চৌধুরী, বাংলাদেশে নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তুরান, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার শাহ রেজওয়ান হায়াত।

২০১৮ সালে জাতিসংঘের মহাসচিবের পর সাধারণ পরিষদের সভাপতির এ সফর কূটনৈতিকভাবে গুরুত্বপূর্ণ। পাশাপাশি রোহিঙ্গা ইস্যুতে বিশ্ব সম্প্রদায়ের মনযোগ আকর্ষণেও এ সফর ভূমিকা রাখবে বলে অভিমত বিশ্লেষকদের।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author