গাজায় ইসরায়িলি হামলা জোরদার

সংঘাতের পঞ্চম দিনে এসে গাজায় হামলা জোরদার করেছে ইসরায়েল। শুক্রবার (১৪ মে) ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসও রকেট হামলা বাড়িয়ে দিয়েছে।

এর আগে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনিদের মধ্যে সহিংসতার এই চক্র দ্রুত বন্ধ হওয়া দরকার।

ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে ফোনালাপে তিনি বলেন,
বিলম্বের চেয়ে শিগগিরই এই সংঘাত বন্ধ হবে বলে আশা করছি। কিন্তু ইসরায়েলের
নিজের আত্মরক্ষার অধিকার আছে।

শুক্রবার গাজায় হামলায় স্থল ও বিমান বাহিনী অংশ নিয়েছে বলে জানিয়েছে ইসরায়েলি বাহিনী। তবে তারা গাজায় প্রবেশ করেনি।

গাজা শহরের ভিডিওতে দেখা যায়, ইসরায়েলি কামান, গানবোট ও বিমান হামলায় আকাশে
বিস্ফোরণের আলো জ্বলে উঠছে। উপত্যকাটিতে এখন পর্যন্ত ১১৯ জন নিহত হয়েছেন।
আহত হয়েছেন কয়েকশ।

ইসরায়েলি সীমান্তে বসবাসরত গাজার অধিবাসীরা ঘরবাড়ি ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন।
গাজার সেজায়ারার বাসিন্দারা বলেন, ইসরায়েলি কামানের গোলা এসে তাদের বাড়িতে
পড়ছে।

উম্ম রাঈদ আল-বাগদাদি বলেন, পুরো এলাকাজুড়ে গোলা আঘাত হানছে। শিশুরা
আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে। এমনকি যারা প্রাপ্তবয়স্ক, শৈশব থেকেই যুদ্ধ দেখে দেখে
বড় হয়েছেন, তারাও বলছেন, আমরা আর সহ্য করতে পারছি না।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author