পরচুলা তৈরির কারখানা স্থাপন করে সংসারের অভাব দূর করেছেন ঠাকুরগাঁয়ের কনিকা বেগম। এর মধ্য দিয়ে এলাকার অনেক নারীর কর্মসংস্থানও সৃষ্টি হয়েছে। তার উৎপাদিত পরচুলা রপ্তানি হচ্ছে বিদেশে। ব্যবসা সম্প্রসারণে যে কোনো সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন জেলা প্রশাসক।

১১ বছর বয়সে বাবাকে হারানো ২ সন্তানের জননী কণিকা অভাবের সংসারে স্বাচ্ছল্য ফেরাতে সাড়ে তিন বছর আগে শুরু করেন পরচুলা তৈরির ব্যবসা। সদর উপজেলা জগন্নাথপুর ভালুকা গ্রামে এ জন্য কারখানাও স্থাপন করেছেন তিনি। বিভিন্ন বিউটি পার্লার থেকে পরিত্যাক্ত চুল সংগ্রহ করে তৈরি করছেন চুলের টুপি বা পরচুলা। এখানে কাজ করে সংস্থান হয়েছে অনেক বেকারের।

কঠোর পরিশ্রম ও আত্মপ্রত্যয়ী কণিকার তৈরি পরচুলা রাজধানী ঢাকা ছাড়িয়ে চলে যাচ্ছে ভারতসহ বিভিন্ন দেশে।

কনিকার ব্যবসা সম্প্রসারণে সরকারি সহায়তার আশ্বাস দিয়েছেন জেলা প্রশাসক ড. কে এম কামরুজ্জামান সেলিম। গ্রামীণ অর্থনীতিকে সমৃদ্ধ করতে কনিকার মত নারীদের উৎসাহ ও সবরকম সহায়তা প্রয়োজন বলে মনে করেন তিনি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author