রমজানে সক্রিয় অসাধু ফল ব্যবসায়ী

চাহিদা থাকায় রমজানে সক্রিয় হয়ে উঠেছে অসাধু ফল ব্যবসায়ীরা। বাজার সয়লাব অপরিপক্ক আম ও লিচুতে। চড়া দাম হলেও রোজায় স্বাদ পরিবর্তনের কথা ভেবে এসব ফল কিনেই ধোঁকা খাচ্ছেন ক্রেতা। গোবিন্দ ভোগ –গোপালভোগ আম , সেখানে এসব আম বাজারে আনা হয়েছে ২ সপ্তাহ আগে। শুধু আমই নয় বাজারে এসেছে অপরিপক্ক লিচুও। চড়া দামে এসব ফল কিোন ঠকছেন ক্রেতারা।

মৌসুমের আগেই রাজধানীর অলিগলি সয়লাব পাকা
আম ও লিচুতে। হলুদাভ
আম দেখে অনেকেই ব্যাকুল হয়ে কিনছেন। বাড়িতে নিয়ে কাটার
পর দেখলেন অপরিপক্ক আমের
আটিই শক্ত হয়নি এখনো। লাল টুকুটুকে লিচু কিনে মুখে তোলামাত্রই টকে বিষিয়ে যাবে
মুখ। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী আম সংগ্রহের সময় আসতে আরো
দেরি।

অথচ অসাধুচক্র বেশি মুনাফার আশায় অপরিপক্ক আমে রাসায়নিক ছিটিয়ে বাজারজাত করছে। থরে থরে ন্সাজিয়ে রাখা আমের রং দেখে প্রতারিত হচ্ছেন ক্রেতা। প্রশ্নের মুখে এক ফল ব্যবসায়ী বলেন- রাসায়নিক মেশানো ফল বাদামতলীতে আসে না, খুচরা ব্যবসায়ীরা কোত্থেকে কেনে তা কেবল তারাই জানেন। চোখের সামনে প্রমাণ দেখালেও ফল অপরিপক্ক,
তা মানতে নারাজ বিক্রেতা। বৃহৎ ফলের বাজার বাদামতলী থেকে
আনা হচ্ছে এসব আম ও লিচু- দাবি তাদের।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পুষ্টি ও খাদ্য বিজ্ঞান অনুষদের প্রফেসর ড. মো. আখতারুজ্জামান এবং জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. লেলিন চৌধুরীর মতে রাসায়নিক দিয়ে পাকানো ফল খেয়ে ক্যান্সারসহ মারাত্মক স্বাস্থ্যঝুকি দেখা দিতে পারে। জৈষ্ঠ মাসের আগে আম- কাঠাল-লিচুর মতো ফল না কেনার পরামর্শও দিয়েছেন এই বিশেষজ্ঞ।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author