লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে রাস্তায় ব্যক্তিগত গাড়ি ও পণ্যবাহী গাড়ির চাপ বেশি

সর্বাত্মক লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে রাস্তায় ব্যক্তিগত গাড়ি ও পণ্যবাহী গাড়ির চাপ
তুলনামূলক বেশি ছিল। এর সাথে সড়কে মানুষের যাতায়াতও প্রথম দিনের তুলনায় বেশি দেখা
গেছে। খোলা জায়গায় বাজার বসানোর সরকারি নির্দেশও ছিল উপেক্ষিত। অলিগলিতে মাছ ও সবজীর বাজারে স্বাস্থ্যবিধি না মেনে চলেছে
বেচাকেনা। প্রধান সড়কে তৎপর ছিল পুলিশ ও র‌্যাব। ব্যাংক, শেয়ার বাজার, শিল্প
কলকারখানা ও জরুরী সেবা খোলা থাকায় রাস্তায় গাড়ি ও মানুষের চাপ বেশি বলে জানান
পুলিশের কর্মকর্তারা ।

সর্বাত্মক লকডাউনের ২য় দিনে রাস্তায় গাড়ির চাপ ছিল চোখে পড়ার মতো। পণ্য
বহনকারী গাড়ির সংখ্যাও প্রথম দিনের তুলনায় অনেক বেশি। প্রধান সড়কে মুভমেন্ট পাশ ও
ঘর থেকে বের হওয়ার প্রয়োজনীয়তা পরীক্ষা নিরীক্ষা করে পুলিশ।

বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও জরুরি পরিষেবা খোলা থাকায় রাস্তায় গাড়ি ও মানুষের চাপ
বেশি বলে জানান পুলিশ কর্মকর্তা।

ঘরে খাবার নেই। সরকারও কোনো ত্রাণ বা খাবার সরবরাহ করেনি। স্ত্রী-সন্তানের
মুখে দুমুঠো অন্ন তুলে দেয়ার আশায় পথে নেমেই আইনের ঘেরাটোপে পড়েছেন রিক্সাচালকেরা।

অন্যদিকে, খোলা জায়গায় বাজার বসানোর নিদের্শও মানা হচ্ছে না। নির্দিষ্ট
বাজারের পাশাপাশি অলিগলি ও পাড়া মহল্লায় দেদারসে চলছে মাছ ও সবজি কেনাবেচা।
উপচেপড়া ভিড়ে উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি।

সর্বাত্ম লকডাউন কার্যকর করতে সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়নে কাজ করার কথা
জানালেন র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে অকারণে বাইরে বের হওয়ায় অনেককে জরিমানাও করা হয়।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author