বস্তিবাসীর জীবিকায় আঘাত হেনেছে করোনা

বস্তিবাসীর জীবিকায় আঘাত হেনেছে করোনা। ব্যয় বেড়েছে কিন্তু বাড়েনি আয়; দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতিতে বরং টান পড়ছে পকেটে। সামনেই আবার রমজান। সব মিলিয়ে সেহরি ও ইফতার নিয়ে চিন্তায় অস্থির বস্তিবাসী ও নিম্নআয়ের মানুষ। যদিও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বলছেন- রমজানে বিশেষ প্রণোদণা পাবেন বস্তিবাসী, তাই অত ঘাবড়ানোর কিছু নেই।

দরজায় কড়া নাড়ছে পবিত্র রমজান।
তবে, করোনা যেন থমকে দিয়েছে রমজানের আগমনী বার্তা। প্রতিবার রমজান আর ঈদ নিয়ে সব
শ্রেণি-পেশার মানুষেরই থাকে বিশেষ পরিকল্পনা। তবে এবারের পট একেবারেই ভিন্ন।

রাজধানীর নতুন বাজার বস্তিতে তিন
হাজার পরিবারের বাস। দৈনন্দিন জীবনযাপনে প্রভাব না ফেললেও জীবিকাকে ক্ষতিগ্রস্ত
করেছে করোনা। তাই এবারের রমজানকেও বিশেষ কিছু ভাবতে পারছেন না
বস্তিবাসী।

দুবেলা খাবার জুগাতেই যেখানে
হিমশিম অবস্থা, সেখানে সেহরি ও ইফতারে রাজসিক কিছু ভাবা আকাশ-কুসুম কল্পনা।

রমজানে টানা উপোসে এমনিতেই পাচনক্রিয়া দুর্বল থাকে। তার মধ্যেই যদি কেউ বাসি খাবার গ্রহণ করেন তা শরীরের জন্য সুখোকর হবে না।

অন্যদিকে বছরের বিশেষ এ মাসে কম দামের মধ্যে হলেও পুষ্টিসমৃদ্ধ খাবার গ্রহণের পরামর্শ দিয়েছেন পুষ্টিবিদেরা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author