ধর্ষণ ও নারী নিপীড়নের ঘটনায় উত্তাল শাহবাগ

দেশব্যাপী ঘটে যাওয়া একের পর এক ধর্ষণ ও নারী নিপীড়নের ঘটনায় আজও উত্তাল শাহবাগ। সেখানে অবস্থান নেয় বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদসহ বেশ কয়েকটি সংগঠন।

মুক্তিযুদ্ধের বাংলায়/ধর্ষকদের ঠাঁই নেই,শহীদ রুমির বাংলায়/ধর্ষকদের ঠাঁই নেই/বিজ্ঞাপনে নারীকে/পণ্য করা চলবে না- এমন সব স্লোগানে উত্তাল হয়ে ওঠে রাজধানীর শাহবাগ। কর্মসূচি অনুযায়ী জাদুঘরের সামনে জড়ো হয় বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদসহ বেশ কয়েকটি সংগঠনের নেতারা।

ফেসবুকভিত্তিক প্ল্যাটফর্ম ‘সেভ আওয়ার উইমেন’ এর সদস্য বর্তমানে প্রায় ১ লাখ ৮৩ হাজার। প্ল্যাটফর্মটি নারী নির্যাতন ও নিপীড়নের বিরুদ্ধে সচেতনতায় কাজ করছে। এর সভাপতি সানজিদা খান বলেন, ‘আমি প্রতিদিন যখন বাসা থেকে বের হই, তেমনি নিরাপদে যেন বাসাতে ফিরতে পারি এটাই আমাদের চাওয়া। স্বাধীন দেশের স্বাধীন নাগরিক হিসেবে আমরা চলতে চাই। আমাকে যেন রাস্তায় ধর্ষণের শিকার হতে না হয়, এটা রাষ্ট্রকে নিশ্চিত করতে হবে।’

ধর্ষণের সাথে জড়িত ও তাদের পৃষ্টপোষকদের বিচার দাবি করেন ছাত্র অধিকার পরিষদের নেতারা। পরে, কালো পতাকা মিছিল নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অভিমুভে পদযাত্রা শুরু করেন সংগঠনটির নেতারা। কিন্তু পুলিশের বাধায় জিরো পয়েন্টে অবস্থান নেয় তারা।

জাতীয় জাদুঘরের সামনে একইস্থানে দুপুর পৌনে বারোটা থেকে বিক্ষোভ করছে বামধারার ছাত্র সংগঠনগুলোর শিক্ষার্থীরা। তাঁরা গতকাল একইস্থানে ‘ধর্ষকের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ’ লেখা ব্যানার নিয়ে গণ অবস্থান ও কালো পতাকা মিছিল করেছিল। এরপর প্রধানমন্ত্রীর কার্যালাওয়ের উদ্দেশে মিছিল নিয়ে যাওয়ার সময় পুলিশের লাঠিপেটায় তাদের কয়েকজন কর্মী আহত হন।

আজকের বিক্ষোভে অবস্থানকারীরা ‘ধর্ষক লীগের আস্তানা ভেঙে দাও, গুঁড়িয়ে দাও’, ‘যে হাত নিপীড়কের সে হাত ভেঙে দাও’, ‘আমার মাটি আমার মা, ধর্ষকদের হবে না’, ‘যে রাষ্ট্র ধর্ষক পুষে, সে রাষ্ট্র ভেঙে দাও’, ‘আমার সোনার বাংলায়, ধর্ষকদের ঠাঁই নাই’, ‘ধর্ষকদের কারখানা, ভেঙে দাও, গুঁড়িয়ে দাও’, ‘পাহাড় কিংবা সমতলে, লড়াই হবে সমানতালে’, স্লোগানে বিক্ষোভ করছেন। তাঁরা গণ অবস্থান থেকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগের দাবি জানান।

এদিকে, ধর্ষকের মৃত্যুদণ্ডসহ সাতদফা দাবিতে মিরপুরে সনি
সিনেমা হলের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করেছে সাধারণ শিক্ষার্থীরা। এ সময় দাবি
পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চালিয়ে দেওয়ার ঘোষণা দেয় শিক্ষার্থীরা। 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author