কর্ণফুলী দখল জরিপ প্রতিবেদন-২০২০ প্রকাশ

কর্ণফুলী দখল জরিপ প্রতিবেদন-২০২০ প্রকাশ হয়েছে। নদী ও খাল রক্ষা আন্দোলনের উদ্যোগে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে চট্টগ্রাম নদী ও খাল রক্ষা আন্দোলনের পক্ষ থেকে এই দাবি জানানো হয়।

সংগঠনটি
সংবাদ সম্মেলনে ‘কর্ণফুলী দখল জরিপ প্রতিবেদন ২০২০’ প্রকাশ করে। এতে শাহ আমানত সেতু
থেকে ফিরিঙ্গিবাজার মনোহরখালী পর্যন্ত এলাকায় নদীর প্রশস্ততা কমে যাওয়ার তথ্য জানানো
হয়।

সংবাদ সম্মেলনে
লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, ২০১৪ সালে নদীর শাহ আমানত সেতু এলাকায় প্রস্থে ছিল ৮৬৬ মিটার,
বর্তমানে তা ভাটার সময়ে দাঁড়িয়েছে ৪১০ মিটার, আর জোয়ারের সময় ৫১০ মিটার।

রাজাখালী খালের
মুখে প্রশস্ততা ৪৬১ মিটার পাওয়া গেছে, যা আগে ছিল ৮৯৮ মিটার। মেরিনার্স পার্ক এলাকায়
৮৫০ মিটার আছে, আগে ছিল ৯০৪ মিটার।

গত ৩০ অগাস্ট
থেকে ২১ দিন এ জরিপ চালানো হয়। বিএস শিট, এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংক, চট্টগ্রাম বন্দর প্রণীত
কৌশলগত মহাপরিকল্পনা ২০১৪ এর সঙ্গে তুলনা করে এই জরিপ করা হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন অধ্যাপক এম আলী আশরাফ,আলীউর রহমান, কর্ণফুলী নদী রক্ষা কমিটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ ইদ্রিস আলী ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যলয়ের অধ্যাপক ড. কিবরিয়া।

এসময় বক্তারা বলেন, অব্যবস্থাপনার কারনে নদী ধ্বংস করছে চট্টগ্রাম বন্দর। শাহ আমানত সেতুর দক্ষিণ প্রান্ত ধসের আশঙ্কাও করেন তারা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author