আবাসিক এলাকায় কোন শিল্প কারখানা থাকবে না

আবাসিক এলাকায় কোন শিল্প কারখানা রাখা হবে না। তবে, আলাদা শিল্পনগরী না হওয়া
পর্যন্ত ব্যবসা চালিয়ে নিতে কারখানা মালিকদের সাময়িক অনুমোদন দেয়া যেতে পারে। এ
নিয়ে মন্ত্রিসভায় আলোচনা মাধ্যমে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। সেইসঙ্গে শিল্প
নগরীর কাজ দ্রুত শেষ করতে সংশ্লিষ্টদের আরও তৎপর হতে হবে। দুপুরে শিল্প
মন্ত্রণালয়ে এক অনানুষ্ঠানিক সভায়, এসব বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়।

পুরান ঢাকার চুড়িহাট্টা ও নিমতলীর ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের প্রেক্ষাপটে আবাসিক
এলাকা থেকে সব শিল্প কারখানা সরিয়ে নেয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। এ লক্ষ্যে তৈরি করা
হচ্ছে আলাদা শিল্প নগরী।

শিল্প মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত বৈঠকে ব্যবসায়ী প্রতিনিধিরা জানান, প্রকল্প বাস্তবায়নে সময় লাগায়, এখনই স্থানান্তর করা যাচ্ছে না কারখানা। এরইমধ্যে ফুরিয়েছে লাইসেন্সের মেয়াদ। আর দক্ষিন সিটির মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস জানতে চান, বর্তমান পরিস্থিতিতে লাইসেন্স নবায়ন করা যাবে? নাকি বন্ধ করে দিতে হবে কারখানা।

দুর্ঘটনা ও ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে আবাসিক এলাকায় কোন কারখানা থাকবে না বলে সরকারের
অবস্থান জানান শিল্পপ্রতিমন্ত্রী আলহাজ কামাল আহমেদ মজুমদার।

কারখানা স্থানান্তরে লাগতে পারে আরও দেড় থেকে দুই বছর। সে পর্যন্ত নিরাপত্তা
নিশ্চিত করে ব্যবসা চালিয়ে নেয়ার পক্ষে মত দেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

বাণিজ্যমন্ত্রীর সঙ্গে একমত শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুনও। তবে, এ
নিয়ে মন্ত্রিসভা থেকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে বলে জানান তিনি।

অনুমোদনের জন্য এ সভার সিদ্ধান্ত দ্রুত মন্ত্রিসভায় পাঠানো হবে বলেও জানান
শিল্পমন্ত্রী।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author