কলম্বিয়ায় পুলিশি নির্যাতন ও হত্যাকান্ডের বিরুদ্ধে চলমান বিক্ষোভে নিহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন । ৩য় দিনের মতো চলা বিক্ষোভে কমপক্ষে ২০০ পুলিশ সদস্য ও ৪ শতাধিক মানুষ । এসময় বিক্ষোভকারীরা রাজধানী বোগোতায় অগ্নি সংযোগসহ ৬০টি পুলিশ স্টেশনে হামলা চালিয়েছে ।

দোকানপাট এবং বানিজ্যিক প্রতিষ্ঠানগুলোও লুট করে নিয়েছে কিছু অসাধু ব্যক্তি।এমন তথ্য জানিয়েছেন দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। এর আগে পুলিশি হেফাজতে থাকা ৪৬ বছর বয়সী এক ব্যক্তির মৃত্যুকে ঘিরে বিক্ষোভে ফুসেঁ উঠেছে গোটা করম্বিয়া। মার্কিন সংবাদ মাধ্যম অল জাজিরা বরাত এসব তথ্য জানা যায়।   

 ২০১৮ সালের আগস্টে কলম্বিয়ার ক্ষমতায় আসেন
প্রেসিডেন্ট ইভান দুকিউ। তবে তাকে নিয়ে দেশটির সাধারণ জনগণ শুরু থেকেই
অসন্তুষ্ট ছিল। এছাড়া তার সময়ে কলম্বিয়ায় বেকারত্ব ব্যাপক হারে বেড়েছে।
পাশাপাশি অবনতি হয়েছে নিরাপত্তা পরিস্থিতির। গত কয়েক মাসে তার বিরুদ্ধে
অনেক আন্দোলন হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২১ নভেম্বর) সরকারবিরোধী
আন্দোলনে নামেন কলম্বিয়ার ইউনিয়ন শ্রমিকরা। অল্প সময়ের মধ্যেই তা দেশব্যাপী
ছড়িয়ে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিরাপত্তারক্ষীরা আন্দোলনকারীদের ওপর
টিয়ার গ্যাস ছুড়ে এবং লাঠিচার্জ করে। এর পর থেকে আরও উত্তাল হয়ে ওঠে
পরিস্থিতি। দফায় দফায় আন্দোলনকারীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষ শুরু হয়। যেখানে
ওই তিনজন নিহত হন বলে তথ্য প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থাটি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author