তিতাসের ৮ কর্মকর্তা-কর্মচারী বরখাস্ত

নারায়ণগঞ্জে ফতুল্লার তল্লা এলাকায় মসজিদে বিস্ফোরণে ঘটনায় তিতাসের ৮ কর্মকর্তা ও কর্মচারীকে বরখাস্ত করা হয়েছে। সেই সঙ্গে তাদেরকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হবে বলে জানানো হয়েছে।

সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) বিকেলে তিতাস কর্তৃপক্ষ এক আদেশে অভিযুক্ত ওই কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক এই ব্যবস্থা গ্রহণ করে। মসজিদটিতে গ্যাস জমে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে যার জন্য তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অব্যবস্থাপনার অভিযোগ ওঠে। এর জের ধরেই সাময়িক বরখাস্তের এই পদক্ষেপ আসলো।

সাময়িক বরখাস্ত হওয়া কর্মকর্তারা হলেন- তিতাসের নারায়ণগঞ্জ ফতুল্লা অফিসের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মোহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, উপব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মাহমুদুর রহমান রাব্বী, সহকারী প্রকৌশলী এস এম হাসান শাহরিয়ার ও সহকারী প্রকৌশলী মানিক মিয়া। তাদের বিরুদ্ধে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে এবং যথাযথ ব্যবস্থা না নেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।

বরখাস্ত হওয়া কর্মচারীরা হলেন- সিনিয়র সুপারভাইজার মো: মুনিবুর রহমান চৌধুরী, সিনিয়র উন্নয়নকারী মো: আইয়ুব আলী, সাহায্যকারী মো: হানিফ মিয়া ও প্রকর্মী মো: ইসমাঈল প্রধান।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৮টার দিকে নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুর তল্লা এলাকার বায়তুস সালাত জামে মসজিদে এশার নামাজের সময় বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অর্ধ-শতাধিক মুসল্লি আহত হন। এর মধ্যে ৩৭ জনকে শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়। বাকিরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নেন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত ২৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে, তিতাস গ্যাসের বৈধ সংযোগের চেয়ে অবৈধ সংযোগই বেশি, এমনটি মনে করেন নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার। আর ওয়াকফ সম্পতিতে মসজিদ গড়ে উঠেছে বলে জানালেন বায়তুস সালাত জামে মসজিদ কমিটির সভাপতি আবদুল গফুর মেম্বার। মসজিদের নীচ দিয়ে গ্যাসের কোন পাইপ লাইন যায়নি বলেও দাবি করেন তিনি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author