রাজধানীর পল্লবী থানায় বোমা বিষ্ফোরণ

রাজধানীর মিরপুরের পল্লবী থানায় বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৪ পুলিশ সদস্যসহ একজন সাধারণ নাগরিক আহত হয়েছেন।

বুধবার ২৯ জুলাই ভোরের দিকে এ ঘটনা ঘটে। আহতরা হলেন-এসআই অংকুশ, এসআই শফিক, এসআই রুমি, ইন্সপেক্টর ইমদাদ ও সিভিলিয়ান রিয়াজ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ডিসি (মিডিয়া) ওয়ালিদুর রহমান।

পুলিশের একটি সুত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার রাতে থানা কম্পাউন্ডের ভেতরে পরিত্যক্ত অবস্থায় একটি বোমা দেখতে পেয়ে তারা বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটকে খবর দেন। কিন্তু বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিট ঘটনাস্থলে যাওয়ার আগেই বোমাটি বিস্ফোরিত হয়। এতে ৪ জন পুলিশ সদস্য ও একজন সাধারণ নাগরিক আহত হন। তাদেরকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

অপর একটি সূত্র জানিয়েছে, একটি আগ্নেয়াস্ত্র ও চারটি ককটেলসহ একজন সন্ত্রাসীকে আটক করে থানায় আনা হয়েছিল। ওই সন্ত্রাসীর সঙ্গে থাকা ককটেলগুলো ডিফিউজ করতে বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটকে কল করা হয়। ককটেল ডিফিউজ করতে গিয়ে বিস্ফোরিত হয়ে পাঁচ জন আহত হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের উপ-কমিশনার (মিডিয়া) ওয়ালিদ হোসেন বলেন, পল্লবী থানা পুলিশ দু’টি আগ্নেয়াস্ত্রসহ তিন জন সন্ত্রাসীকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। সন্ত্রাসীদের কাছে ওজন মাপার মেশিনের মতো একটা যন্ত্র ছিল। ওই যন্ত্রটি ডিউটি অফিসারের কক্ষে রাখা হলে তা বিস্ফোরিত হয়। পুলিশের কাছে তথ্য ছিল তারা পল্লবীর স্থানীয় একজন রাজনৈতিক নেতাকে হত্যা করবে। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।

আহতদের মধ্যে এসআই অংকুশকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে চক্ষু হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এসআই শফিক ও ইন্সপেক্টর ইমদাদ প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছেন। আর আহত এসআই রুমি ও সিভিলিয়ান রিয়াজ ঢামেকে চিকিৎসাধীন আছেন।

জঙ্গি হামলার আশঙ্কায় দেশজুড়ে পুলিশ সদর দফতরের পক্ষ থেকে সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে। এতে পুলিশকে টার্গেট করে পুলিশ সদস্যদের ওপর বা পুলিশের স্থাপনায় হামলা হতে বলে আশঙ্কা করা হয়েছে। এর চার দিনের মাথায় এ ঘটনা ঘটলো।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author