ইরাকে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ৮০ মার্কিন সেনা নিহত

ইরাকে
মার্কিন সেনা ঘাঁটিতে ইরানের ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ৮০ মার্কিন সেনা নিহত হয়েছে।
মঙ্গলবার রাতে দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় দুটি মার্কিন ঘাঁটি লক্ষ্য করে এ হামলা চালানো
হয়েছে বলে জানিয়েছে ইরানের রেভুল্যশনারি গার্ডস। জাতিসংঘ চার্টারের আর্টিকেল ফিফটি
ওয়ানের আইন মেনেই এ হামলা চালানো হয়েছে বলে দাবি করেছেন ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী
জাভেদ জারিফ। আর এ হামলাকে যুক্তরাস্ট্রের গালে চপেটাঘাত বলে মন্তব্য করেছেন
দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ খামেনি। এদিকে, হামলার পরই টুইটবার্তায়
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানান, তাদের কাছে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী
সেনাবাহিনী রয়েছে। হামলার পর মধ্যপ্রাচ্যে ইরাক, ইরাক ও সৌদি সীমান্ত এলাকায়
বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

কাশেম
সোলেইমানি হত্যার জেরে ইরাকের দুটি মার্কিন সেনা ঘাঁটিতে ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র
হামলা চালিয়েছে ইরান। ইরাকের আইন আল-আসাদ ও ইরবিল বিমানবন্দরের কাছে অবস্থিত দুটি
মার্কিন ঘাঁটি লক্ষ্য করে এসব হামলা চালানো হয়েছে বলে স্বীকার করেছে ইরানের
রেভুল্যশনারি গার্ডস।

জাতিসংঘ
চার্টারের আর্টিকেল ফিফটি ওয়ানের আইন মেনেই এ হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন
ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাভেদ জারিফ। তেহরান যুদ্ধ চায়না উল্লেখ করে টুইটারে তিনি
জানান, যেকোন ধরণের আগ্রাসন থেকে বাঁচতে প্রতিরক্ষামূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এদিকে,
হামলার পরই টুইটবার্তায় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জানান, সবকিছু ঠিক,
তাদের কাছে বিশ্বের সবচেয়ে শক্তিশালী সেনাবাহিনী রয়েছে, যারা যেকোন স্থানে যেকোন
শক্তি মোকাবেলা করতে সক্ষম।

হামলার
পর সংঘাত এড়াতে ইরানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ডেমোক্র্যাট নেতারা।
বিশ্ব আর কোন যুদ্ধের ক্ষয়ক্ষতির ভার নিতে পারবে না বলে জানান তারা। হামলার পর
টুইটারে প্রতিনিধি পরিষদের স্পিকার ন্যান্সি পেলোসি জানান, ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের
ঘাঁটিতে হামলার ঘটনা পর্যবেক্ষণ করছেন তিনি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author