ট্যানারী স্থানান্তর হলেও মেলেনি কাংক্ষিত সেবা

ঢাকার হাজারীবাগ থেকে ট্যানারীগুলো সাভারের স্থানান্তর করলেও এখনও মেলেনি কাংক্ষিত সুযোগ-সুবিধা। ট্যানারীর বিষাক্ত বর্জ্যে নষ্ট হচ্ছে বহমান ধল্লেশরী নদীর পানি। এতে প্রাকৃতিক পরিবেশ ভারসাম্য হারাচ্ছে। মালিকদের অভিযোগ প্লট এখনও পুরোপুরি প্রস্তুত করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। অন্যদিকে পরিবেশ দূষণরোধে ট্যনারী মালিকদের সময় বেধে দেয়া হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে।

রাজধানীর উপকন্ঠে সাভারের হেমায়েতপুর হরিনধরা স্থাপিত চামড়া শিল্প নগরী। বহু দিন অতিবাহিত হলেও এখন পর্যন্ত পুরোদমে কার্য্যক্রম চালু করতে পারেনি কর্তৃপক্ষ। উদাসিনতার কারনে ট্যানারীতে দেখা দিয়েছে নানা সমস্যা। পরিবেশ দূষন মুক্ত রাখতে প্রতিশ্রুতি দেয়া হলেও বাস্তবায়নে ব্যর্থ কর্তৃপক্ষ। এখনও ট্যানারীর  তরল বর্জ্য আর বিষাক্ত পানি সরাসরি ফেলা হচ্ছে ধল্লেশরী নদীতে।

ক্যামিকেলযুক্ত পানির  দূর্গন্ধে অতিষ্ট এলাকাবাসি। বিষাক্ত বর্জ্যের থাবায় মরছে নদীর মাছ। এ নিয়ে ক্ষোভ জানান এলাকাবাসি। সম্প্রতি ট্যানারী পল্লী পরিদর্শনে গিয়ে প্রধানমন্ত্রীর শিল্পবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেন, বেধে দেয়া সময়ের মধ্যে পরিবেশ দূষণমুক্ত করতে না পারলে ট্যানারী মালিকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শ্রমিকরা জানান, ট্যানারীর ড্রেনগুলি বড় না হওয়ায় সামান্য বৃষ্টিতে পানি রাস্তায় জমে যাতায়াতের সমস্যা দেখা দেয়। ১৯৪ দশমিক ৪০ একর জমির উপর গড়ে উঠা প্রকল্পে প্লট সংখ্যা ২০৫ টি। এসব প্লটে ১৫৫টি শিল্প ইউনিটের মধ্যে ১৫৪টি প্লট বরাদ্দ করা হয়েছে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author