ভারতের
আসামে প্রকাশ হলো বহুল প্রতিক্ষীত চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা। ১৯ লাখ বাসিন্দাকে বাদ দিয়েই শনিবার সকালে এ নাগরিক তালিকা প্রকাশ করেছে দেশটির কেন্দ্রীয়
সরকার। তালিকায় ঠাঁই পেয়েছে প্রায় ৩ কোটি ১১ লাখ বাসিন্দা। একইসঙ্গে বাদ পড়াদের নথিভুক্ত হতে ১২০ দিন সময় দেয়া
হয়েছে।

চূড়ান্ত নাগরিক তালিকা প্রকাশকে ঘিরে রাজ্যজুড়েই ছিলো
টানটান উত্তেজনা। তালিকা থেকে বাদ পড়ার আতঙ্কে ছিলো আসামের সংখ্যালঘু মুসলিম
সম্প্রদায়ের সদস্যসহ অনেকেই। ন্যাশনাল রেজিস্টার
অব সিটিজেন বা এনআরসি’র ওয়েব পেইজে তালিকাটি প্রকাশ করা হয়।  এতে ৩
কোটি ১১ লাখ বাসিন্দাকে চূড়ান্ত নাগরিক তালিকায় রাখা হয়েছে।

তালিকা প্রকাশের পর বিশৃঙ্খলার আশঙ্কায় গোটা রাজ্যকে
নিরাপত্তার বলয়ে মুড়ে ফেলা হয়েছে। রাজ্যজুড়ে ৬০ হাজার পুলিশের সঙ্গে আরও ২ হাজার
আধা সামরিক বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। 
আসাম পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, যে সব ব্যক্তিদের নাম চূড়ান্ত তালিকায় থাকবে না, তাদের
পর্যাপ্ত নিরাপত্তা দেয়ার ব্যবস্থা করেছে সরকার। পাশাপাশি কোন ধরণের গুজবে কান না
দেয়ার আহ্বান জানিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

১৯৭১ সালের ২৫ মার্চের পর থেকে যেসমস্ত বাংলাদেশি নাগরিক
বেআইনি ভাবে ভারতে বসবাস করছেন তাদের চিহ্নিত করতেই সেই তালিকা সংশোধনের নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। আগের তালিকায় অনেক ভারতীয় বাদ পড়ায় নতুন তালিকা তৈরির ঘোষণা
দেয় মোদি সরকার। একই সঙ্গে প্রশাসনের পক্ষ থেকে
জানানো হয়েছে, তালিকায় নাম
না থাকলেও ট্রাইব্যুনালের চূড়ান্ত রায়ের আগ পর্যন্ত তাদের বিদেশি বলা যাবেনা।
একইসঙ্গে বাদ পড়াদের নথিভুক্ত হওয়ার সময় ৬০ দিন থেকে বাড়িয়ে ১২০ দিন করা হয়েছে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author