দেশের ৯৩ শতাংশ ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রি হয়, এ তথ্যের সঙ্গে একমত নয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এবং ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর। তবে, মানুষ স্বাস্থ্যঝুঁকিতে পড়ে, এমন কিছু হতে দেয়া হবে না বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

আর ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক  মাহবুবুর রহমান জানান, মেয়াদোত্তীর্ণ ও নিম্নমানের ওষুধ বিক্রি বন্ধে জিরো টলারেন্স নীতিতে কাজ করছেন তারা। সচিবালয়ে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তারা। আগামী শনিবার সারাদেশে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন চালাবে সরকার।

দেশে
লাইসেন্সপ্রাপ্ত ফার্মেসির সংখ্যা এক লাখ ৩০ হাজার। লাইসেন্সহীন ফার্মেসির সংখ্যা
আরো বেশি। এসবে থাকা মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ সরিয়ে নিয়ে ধ্বংসের নির্দেশ দিয়েছেন
হাইকোর্ট।

দেশের
৯৩ শতাংশ ফার্মেসিতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ বিক্রি হয়, আদালতে উপস্থাপিত এমন তথ্যের
সঙ্গে একমত নয় সরকার।

তবে,
ফার্মেসিগুলোতে মেয়াদোত্তীর্ণ ওষুধ থাকতে পারে স্বীকার করে তারা বলছেন, মেয়াদোত্তীর্ণ
ওষুধ বিক্রি বন্ধে পদক্ষেপ অব্যাহত আছে।

শনিবার
সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ৬ মাস থেকে ৫ বছর বয়সী প্রায় ২ কোটি ২০ লাখ
শিশুকে ভিটামিন ই ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। স্বাস্থ্যমন্ত্রী জানান, পরীক্ষা
নিরীক্ষা করায় এবার ক্যাপসুলের মান নিয়ে প্রশ্ন উঠবে না।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author