মঙ্গল শোভাযাত্রা ছাড়া পয়লা বৈশাখ যেন অসম্পূর্ণ। নতুন বছরকে বরণে আনন্দের বান মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজকদের মাঝে। এবারে মানুষ ভজলে সোনার মানুষ হবি প্রতিপাদ্যে বেরুবে মঙ্গল শোভাযাত্রা।  বাংলা ১৪২৫-এর শোভাযাত্রা আয়োজনে মুখর এখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদ। চলছে বিশাল কর্মযজ্ঞ। তৈরি হচ্ছে মাটির সরা, ফুল, পাখি, পুতুল, মুখোশসহ নানা শিল্পকর্ম।

বৈশাখের প্রথম সূর্যোদয়ে বাঙালি জাতি বরণ করবে নতুন বছরকে। প্রাণের এ উৎসব উদযাপনের প্রস্তুতি চলছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলায়। এখন পর্যন্ত শেষ হয়েছে ৬০ শতাংশ কাজ।

মাছ, পাখি, পেঁচা, মাটির সরা, মুখোশ, টেপাপুতুলবর্ণিল সব শিল্পকর্ম তৈরিতে দিনরাত কাজ করছেন শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা। এসব শিল্পকর্ম বিক্রির অর্থ দিয়েই মেটানো হবে মঙ্গল শোভাযাত্রা আয়োজনের খরচ।

এবারের মঙ্গল শোভাযাত্রা থেকে দেশের সব মানুষকে মানবিক মানুষ হওয়ার আহ্বান জানানো হবে।  ১৯৮৯ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলার শিক্ষার্থীরা প্রথম আয়োজন করে  মঙ্গল শোভাযাত্রার। যা ২০১৬ সালে অর্জন করে ইউনেস্কোর ওয়ার্ল্ড হেরিটেজের স্বীকৃতি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment