জনসংখ্যা বৃদ্ধি, গাছ কাটা ও অপরিকল্পিত শিল্পায়নের কারণে দেশি ফল বিলুপ্তির পথে বলে দাবি করছেন কৃষিবিদরা। বর্তমানে বাজারের ৮০ ভাগ ফলই বিদেশি। সামাজিক আন্দোলন ও হর্টিকালচার সেন্টারের মাধ্যমে মাঠ পর্যায়ে চারা বিতরণ করে দেশিয় ফল রক্ষা সম্ভব বলে মনে করছেন তারা।

দেশি ফলের প্রায় অর্ধেক প্রজাতি বিলুপ্তির পথে। বাজারে ৪০টির বেশি দেশি ফলের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায় না। বিলুপ্তির পথে কাউ, বেত, টিপা, ডেউয়া, আশ, করমচা, ডুমুর, গজ ডুমুর, শরিফা, অরবরই, আতাসহ হরেক রকম দেশিফল।

দেশি ফলের সরবরাহ কম, তাই বিদেশি ফলের অধিপত্য বেশি… এমটাই দাবি বিক্রেতাদের। অন্যদিকে ক্রেতারা বলছেন, দেশি ফল না পাওয়ায় বিদেশি ফল কিনছেন তারা।

দেশি ফলের বিলুপ্তি ঠেকাতে রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা দরকার বলে মনে করছেন গবেষকরা। সুষ্ঠু পরিকল্পণা ও তার বাস্তবায়নের মাধ্যমে ফল আমদানি বন্ধ করা সম্ভব বলে মনে করছেন গবেষক ও উৎপাদনকারীরা।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment