বাঘ আতংকে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছেন বঙ্গোপসাগর সংলগ্ন সুন্দরবন উপকূলের কয়েক গ্রামের মানুষ। প্রায়ই লোকালয়ে এসে গবাদি পশু ধরে নিয়ে নিচ্ছে বাঘেরা। হামলা করছে মানুষের ওপরও। বিষয়টি স্বীকার করে টহল বাড়ানোর পাশাপাশি জনসচেতনতা বাড়াতে কাজ চলছে বলে জানিয়েছে বনবিভাগ।

গেল ফেব্রুয়ারি মাসে বাঘের আক্রমণে জখম হন সুন্দরবনের গুলশাখালী গ্রামের কয়েকজন মানুষ। পরে বাঘটিকে ধরে পিটিয়ে হত্যা করে এলাকাবাসী। তাদের দাবি, কিছুদিন আগে এই বাঘটিই বৌদ্ধমারী ও জয়মনি গ্রামের দুটি গরু খেয়ে ফেলে।

খাদ্য ও আবাসস্থল কমে যাওয়ায় বাঘদের লোকালয়ে আনাগোনা বেড়েছে বলে মনে করেন স্থানীয়রা। বাঘের হামলা ঠেকাতে লোকালয়ের চারপাশে কাঁটাতারের বেড়া নির্মাণের দাবি স্থানীয় জনপ্রতিনিধির।

জঙ্গল ছেড়ে বাঘের লোকালয়ে চলে আসার কারণ ব্যাখ্যা করল বনবিভাগ। বন বিভাগের দাবি অবৈধ শিকারি ও গ্রামবাসীর হাতে ২০০১ থেকে ২০১৮ সাল পর্যন্ত অন্তত ৫০টি বাঘের মৃত্যু হয়েছে। এই সময়ে কেবলমাত্র সুন্দরবনের পশ্চিম বন বিভাগ এলাকায় বাঘের হামলায় প্রাণ গেছে ২শ’ ৬০ জন নারী পুরুষের।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment