প্রায় ৩৩ লাখ মামলার চাপে নুব্জ্য দেশের বিচারবিভাগ। এতে সীমাহীন ভোগান্তিতে বিচারপ্রার্থীরা। বিচারক সংকট ও মামলা পরিচালনায় সনাতন পদ্ধতিকেই বর্তমান অবস্থার জন্য দায়ী করছেন আইন সংশ্লিষ্টরা। তাদের পরামর্শ, পর্যাপ্ত বিচারক নিয়োগ ও অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মামলা নিষ্পত্তি হলে কমবে মামলাজট।

সুপ্রিমকোর্টের বার্ষিক প্রতিবেদন অনুযায়ী ২০১৭ সাল পর্যন্ত দেশের নিম্ন আদালতগুলোতে বিচারাধীন মামলার সংখ্যা ২৮ লাখেরও বেশি। আর উচ্চ আদালতে এ সংখ্যা প্রায় ৫ লাখ।

৫ বছর বা এর বেশি সময় ধরে আদালতগুলো ঝুলে থাকা মামলার সংখ্যা প্রায় ৯ লাখ। উচ্চ আদালতেই এ সংখ্যা ৩ লাখের মতো।   গেল তিন বছরে মামলা বেড়েছে ৭৫ দশমিক ৪৩ হারে। বিচারক সংকটের কারণে কমেছে মামলা নিষ্পত্তির হার। ২০১৬ সালের চেয়ে ২০১৭ সালে ১ হাজার ৪৩টি মামলা কম নিষ্পত্তি হয়েছে। প্রায় ৩৩ লাখ মামলার বিপরীতে সারাদেশে বিচারক আছেন মাত্র ১৭শ’।

বর্তমানে আপিল বিভাগে থাকা সাড়ে ১৬ হাজার মামলার বিপরীতে,  প্রধান বিচারপতিসহ বিচারক সংখ্যা মাত্র চার জন। নিয়ম অনুযায়ী ১১ জন থাকার কথা।  আর হাইকোর্ট বিভাগে পৌণে ৫ লাখ মামলার বিপরীতে বিচারক ৮০ জন। একই অবস্থা নিম্ন আদালগুলোরও।

অপ্রয়োজনীয় মামলা চিহ্নিত করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে মামলা নিষ্পত্তির তাগিদ দিলেন ব্যারিস্টার এম.আমিরুল ইসলাম। সিনিয়র আইনজীবীরা বিচারবিভাগের আধুনিকায়ন করা জরুরী বলে মন্তব্য করেন।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment