নোয়াখালীর দুই উপজেলায় পল্লি বিদ্যুতের সংযোগ দেয়ার নামে আদায় করা হচ্ছে অর্থ। খুঁটি ও মিটার সংযোগের অযুহাতে সম্ভাব্য গ্রাহকদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে অর্থ। অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় জনপ্রতিনিধির সঙ্গে যোগসাজসে বিদ্যুত কর্তৃপক্ষের এক শ্রেণির কর্তাব্যক্তি এ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। দালাল ছাড়া কথা বলতেও রাজি নয় বিদ্যুৎ কর্মকর্তারা।

২০১৯ সালের মধ্যে দেশকে শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় আনার অঙ্গিকার  সরকারের। তারই অংশ হিসেবে নোযাখালীর চাটখিল ও সোনাইমুড়ি উপজেলায় চলতি বছরের জুন মাসে শতভাগ বিদ্যুতায়নের উদ্বোধন করার কথা রয়েছে প্রধানমন্ত্রীর। এরপরই শুরু হয় ৪১০ কিমি লাইন নির্মান এবং ৩৫ হাজার মিটার সংযোগের কাজ।

এ সুযোগে দালালদের মাধ্যমে এক শ্রেনির অসাধু কর্মকর্তা প্রতি পিলারের জন্য আদায় করছেন ৮০ হাজার থেকে এক লাখ টাকা। আর মিটার প্রতি ৬ থেকে ১০ হাজার টাকা।

অনিয়ম ও অবৈধ লেনদেন নিয়ে অভিযোগ করলেও মেলেনি কোন সমাধান। আর অনিয়মের অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষণা দিলেন জেলা পল্লী বিদ্যুতের জেনারেল ম্যানেজার।

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment