একাত্তরে মুক্তিযোদ্ধাদের মৃতসঞ্জীবনীর মত প্রেরণা জুগিয়েছিল কিছু কালজয়ী স্লোগান। বাঙালির ইতিহাসে চিরভাস্বর এসব স্লোগানে যেমন ছিল যুদ্ধ জয়ের মন্ত্র,তেমনি ছিল দেশমাতৃকার জন্য মুক্তির আকুতি।

এই ‘জয় বাংলা’ শ্লোগানই প্রাণভোমরা হয়ে প্রেরণা জোগায় সাড়ে সাত কোটি মুক্তিকামী জনতাকে। এই স্লোগানের মন্ত্রে উজ্জীবিত হয়েই একাত্তরের পুরো ন’মাস ৫৫ হাজার বর্গমাইল জনপদ চষে বেড়ান মুক্তিযোদ্ধারা।

চারপাশে শুধুই ধ্বংসযজ্ঞ আর রক্তের সমুদ্র। সঙ্গে প্রিয়জন হারানোর বেদনা। কষ্ট-শোকে বিমর্ষ মুক্তিযোদ্ধাদের চাঙ্গা রাখতে মৃত্যুঞ্জয়ী টনিক হিসেবে কাজ করেছে এসব স্লোগান।

এসব কেবলই স্লোগান নয়, বলা যায় মুক্তির মন্ত্র পড়া একেকটা বজ্রনিনাদ। পাকিস্তানি হানাদারদের নাকানিচোবানি খাইয়ে বাংলার প্রতি ইঞ্চি মাটিতে স্বাধীনতার বিজয় নিশান ওড়ানোর বিস্ফোরক পংক্তিমালা।

জয় বাংলা হচ্ছে মুক্তিযোদ্ধা এবং বাঙালির প্রাণের ধ্বনি। তাই একে রাখতে হবে রাজনৈতিক বলয় বা মতাদর্শের উর্ধ্বে। জয় বাংলাকে কেন জাতীয় স্লোগান আখ্যা দেয়া হবে না, সম্প্রতি উচ্চ আদালতের দেয়া রুলকে স্বাগত জানিয়েছেন তিনি।

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment