পিলখানা ট্রাজেডির নবম বার্ষিকীতে বিডিআর বিদ্রোহে নিহতদের শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেছেন স্বজন ও সামরিক বাহিনীর কর্মকর্তারা। দিনটিকে সেনা শহীদ দিবস হিসেবে ঘোষনার দাবি জানিয়েছেন নিহতদের স্বজনরা। এদিকে, এ বছরের মধ্যেই অস্ত্র ও বিস্ফোরক আইনে করা মামলার বিচারকাজ শেষ হতে পারে বলে আশা জানিয়েছেন বিজিবি মহাপরিচালক আবুল হোসেন।

২৫ ফেব্রুয়ারি ২০০৯। তৎকালীন বিডিআরের কিছু বিপথগামী সদস্যের সশস্ত্র বিদ্রোহে নিহত হন ৫৭ সেনা কর্মকর্তাসহ ৭৪জন। ট্র্যাজেডির ৯ বছর পেরিয়ে গেলেও সেই দু:সহ স্মৃতি আজো তাড়িয়ে বেড়ায় স্বজনদের।

স্বজন হারানোর সেই ক্ষত নিয়ে দিন কাটে শহীদ পরিবারগুলোর। টানা ৩৬ ঘন্টা বর্বর হত্যারহস্য আজো অজানা তাদের কাছে। বনানী সামরিক করবস্থানে নিহতদের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানান রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর প্রতিনিধিসহ তিন বাহিনীর প্রধানরা।

শ্রদ্ধা নিবেদন করেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারা। শ্রদ্ধা নিবেদন শেষে বিজিবি মহাপরিচালক কথা বলেন বিডিআর বিদ্রোহ নিয়ে মামলার বিষয়ে।

নিহতদের পরিবার পরিজনের সব ধরনের সুবিধা নিশ্চিত করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment