লাভজনক হওয়ায় সুনামগঞ্জে বাড়ছে দুগ্ধ খামারের সংখ্যা। এতে যেমন সংস্থান হচ্ছে অনেক বেকারের, তেমনিভাবে মিটছে স্থানীয় চাহিদা। খামারের উন্নয়নে প্রশিক্ষসহ নানা সহায়তা দিচ্ছে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর।

মনসুর আজাদ বহুমুখী দুগ্ধ খামার। সুনামগঞ্জের ছাতকে বাণিজ্যিকভাবে গড়ে ওঠা খামারটিতে দেশি-বিদেশি ৬৬টি জাতের গাভী রয়েছে। খাবার হিসেবে দেয়া হয় ছোলা, ভুষি, খড়, ঘাসের মত প্রাকৃতিক খাদ্য।

এর মধ্যে অস্ট্রেলিয় ও ফ্রিজিয়ানা জাতের গরুগুলো প্রতিদিন দু’বেলা করে দুধ দেয়। প্রতিদিন প্রায় ২৫০ লিটার দুধ উৎপাদন হয়।

খামারের উন্নয়নে প্রশিক্ষণের পাশাপাশি নানা পরামর্শ দিচ্ছে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর। লাভজনক হওয়ায় জেলার বিভিন্ন স্থানে গড়ে উঠেছে এমন অসংখ্য দুগ্ধ খামার, যেখানে সংস্থান হয়েছে অনেক বেকারের।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment