কুমিল্লার দেবীদ্বারে মাদকের ভয়াল থাবা থেকে বেরিয়ে এসেছে অর্ধশতাধিক যুবক। স্থানীয় প্রশাসন ও সুশীল সমাজের উদ্যোগে মাদক ছেড়ে ভিবিন্ন পেশায় পুর্ণবাসিত হয়েছেন তারা। উদ্যোগক্তাদের লক্ষ্য উপজেলাকে মাদকমুক্ত ঘোষণা করা।

কিছুদিন আগেও মাদকের ভয়ংকর ছোবলে আক্রান্ত ছিল কুমিল্লার দেবীদ্বার উপজেলা। বাগুর, জাফরগঞ্জ, কালিকাপুর, শালঘর ও রসুলপুরসহ বেশ কয়েকটি স্থানে দিন-রাতে আবাদে কেনাবেচা হতো মাদক। এতে জড়িয়ে পড়ে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ বেকার যুবকরা। এর প্রভাবে বেড়ে যায় চুরি-ডাকাতি-ছিনতাইসহ নানা অপরাধ। এর নেতিবাচক প্রভাব পড়ে পুরো জেলায়।

তবে প্রশাসন ও সুশীল সমাজের উদ্যোগে এরইমধ্যে অর্ধশতাধিক মাদক ব্যবসায়িকে বিভিন্ন পেশায় পুর্ণবাসিত করা হয়েছে।

কর্মদক্ষ করে তুলতে দেয়া হচ্ছে প্রশিক্ষণ। অনেকের পরিচয় হয়ে উঠেছে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী ও অটোরিক্সা চালক হিসেবে।অন্ধকার জগত থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে ফেরে আনন্দিত এক সময়ে মাদক ব্যবসায়ীরা।

আর মাদককে না বলা এসব মানুষকে সাবলম্বী করতে সব ধরণের সহযোগিতার আশ্বাস দিলেন স্থানীয় সংসদ সদস্য।

এ ধরনের উদ্যোগ ছড়িয়ে পড়লে দেশকে মাদকের আগ্রাসন থেকে মুক্তি দেয়া সম্ভব বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment