ক্রিকেট ক্যারিয়ারই হুমকির মুখে পড়ে যেতে পারে ইংলিশ অলরাউন্ডার বেন স্টোকসের। গত সেপ্টেম্বর ব্রিস্টলে নাইট ক্লাবের বাইরে মারামারির ঘটনাটিকে গতকাল ‘প্রকাশ্যে দাঙ্গা’ হিসেবে অভিহিত করেছেন ইংল্যান্ডের ক্রাউন প্রসিকিউশন সার্ভিস (সিপিএস) নামের বিশেষ আদালত। অভিযোগ প্রমাণিত হলে তাঁর তিন বছরের জেলও হতে পারে।

ইংলিশ ও ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ড (ইসিবি) জানিয়েছে, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে বৈঠক করে তারা সিদ্ধান্ত নেবে, আসন্ন নিউজিল্যান্ড সফরে স্টোকস আদৌ খেলতে পারবেন কি না। ব্রিস্টলের মারামারির ঘটনার পর অ্যাশেজ ও অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে খেলার অনুমতি না পাওয়া এই ক্রিকেটার নিউজিল্যান্ড সফরে ইংল্যান্ড দলে নির্বাচিত হয়েছেন ইতিমধ্যেই। গত সেপ্টেম্বরের সেই মারামারির ঘটনার পর ইসিবি স্টোকসকে অনির্ধারিত সময়ের জন্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে নিষিদ্ধ করে।

গত ২৬ নভেম্বর অ্যাভন ও সমারসেট পুলিশ স্টোকসের বিরুদ্ধে সিপিএস আদালতে একটি অভিযোগ পেশ করে। সেই অভিযোগপত্রে স্টোকসের বিরুদ্ধে জননিরাপত্তা বিঘ্নিত করার কথা বলা হয়। গত ডিসেম্বর মাসে এ ব্যাপারে আরও কিছু প্রমাণ আদালতে পেশ করা হয়।

সিপিএসের একজন মুখপাত্রের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, সব তথ্য-প্রমাণ আমলে নিয়ে, এসব বিশ্লেষণ করে সিপিএস সোমবার স্টোকসসহ আরও দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে দাঙ্গা-হাঙ্গামার মাধ্যমে ব্রিস্টল শহরের কেন্দ্রে জননিরাপত্তা বিনষ্টের অভিযোগ আনে। খুব শিগগির স্টোকসকে ওই দুই ব্যক্তির সঙ্গে আদালতে উপস্থিত হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে এর তারিখ এখনো ঠিক হয়নি।

অ্যাশেজ সিরিজে ইংল্যান্ডের হয়ে খেলতে না পারা স্টোকস এখন আইপিএল থেকে বাদ পড়ার হুমকির মধ্যে আছেন। গত আইপিএলে সাড়ে ১৪ কোটি রুপিতে পুনে সুপারজায়ান্টসের হয়ে খেলেছিলেন তিনি। তাঁকে পেতে এবারও আগ্রহী ফ্র্যাঞ্চাইজিগুলো। তবে ইংল্যান্ডের প্রচলিত আইনে অপরাধ প্রমাণিত হলে দীর্ঘ মেয়াদে হয়তো সাজা অপেক্ষা করছে এই ক্রিকেটারের জন্য। স্টোকসকে নিলে কোনো ঝুঁকি আছে কি না, এ ব্যাপারে নিশ্চিত হতে চায় আইপিএলের দলগুলো।

ইসিবি যদিও তাঁর আইপিএল খেলার ওপর কোনো নিষেধাজ্ঞা দেয়নি। তবে আদালত কী রায় দেবেন, কবে দেবেন, এরপরের আইনি পদক্ষেপগুলো কী হবে, তা এখনো নিশ্চিত নয়।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment