অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে চাঁপাইনবাবগঞ্জের বাঘবাড়িয়ার ‘বিধবা নারী সংস্থা’ নামে একটি সমিতির বিরুদ্ধে।  স্থানীয় বিধবা, প্রতিবন্ধী ও হতদরিদ্র নারীদের কাছ থেকে সংগ্রহ করা কোটি টাকার আমানত নিয়ে সমিতির কার্যক্রম গুটিয়ে নিয়েছেন এর প্রতিষ্ঠাতা হিরামতি। অভিযোগের পক্ষে প্রমাণও পেয়েছে তদন্ত কমিটি। টাকা ফেরত পাওয়ার আশায় দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন সমিতির ক্ষতিগ্রস্ত সদস্যরা।

২০১৫ সালে চাঁপাইনবাবগঞ্জে বারঘরিয়া এলাকায় হিরামতি নামে এক নারী গড়ে তোলেন বিধবা নারী সংস্থা নামে একটি সমিতি। এরপর নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে বিধবা, প্রতিবন্ধী ও হতদরিদ্র নারীদের কাছ থেকে আমানত সংগ্রহ শুরু হয়। তবে এক বছরে সমিতির কার্যক্রম গুটিয়ে নিয়েছে সমিতিটি। সঞ্চয়ের টাকা ফেরত পাওয়ার আশায় প্রশাসনের দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন ক্ষতিগ্রস্তরা।

এদিকে, বেতন-ভাতা দেয়া হচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছেন মাঠকর্মীরা। অভিযোগের সত্যতা যাচাইয়ে স্থানীয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে গঠন করা হয় ৫ সদস্যের কমিটি। তদন্তে অর্থ আত্মসাতের প্রমাণ পায় কমিটি।

তবে সব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভানেত্রী হিরামতি। অভিযুক্ত হিরামতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আশ্বাস দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment