পাকিস্তান সেনাদের বিরুদ্ধে জিয়ার গুলি চালানোর প্রমাণ নেই: প্রধানমন্ত্রী

জিয়াউর রহমান মুক্তিযুদ্ধের সেক্টর কমান্ডার ছিলেন কিন্তু তিনি যুদ্ধ করেননি বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শোকের মাসের শেষদিন কৃষিবিদ ইন্সটিটিউশনে আলোচনা সভা আয়োজন করে ছাত্রলীগ। মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

এতে ভার্চুয়ালি যুক্ত হন আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সংগঠন থেকে প্রকাশিত বই এবং ম্যাগাজিনের মোড়ক উন্মোচন করেন তিনি।

তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান সেক্টর কমান্ডার ছিলেন ঠিক আছে। কিন্তু তিনি
পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে গুলি চালিয়েছেন এমন নজির নেই। ফলে তিনি
যুদ্ধ করেননি। 

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, ৭৫-এর খুনি ও অপশক্তির উৎস ছিলেন জিয়াউর রহমান।
৭৫ এর খুনিদের সঙ্গে সবসময় ছিলেন জিয়াউর রহমান। অবৈধভাবে ক্যু করে ক্ষমতা
দখল করেন। বেঈমানির কারণেই মেজর থেকে পদন্নোতি পেয়েছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, জিয়ার রহমানের শাসনামলে দেশে শিক্ষার কোনো পরিবেশ ছিল না। ছিল অস্ত্রের ঝনঝনানি। আর আওয়ামী লীগ শিক্ষার পরিবেশ সৃষ্টি করেছে। পড়াশোনার পাশাপাশি দেশ ও জনগণের কাজে ছাত্রলীগকে মনোনিবেশ করারও নির্দেশ দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন,
স্বাধীনতার এতো বছর পরও পরাজিত শক্তির চক্রান্ত শেষ হয়নি। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ মেনে এবং
দেশের জন্য ত্যাগের মানসিকতা নিয়ে রাজনীতি করতে ছাত্রলীগের প্রতি আহ্বান জানান
তিনি। সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য এবং আদর্শ নিয়ে কাজ করায় বাধা-বিপত্তি স্বত্বেও দেশকে
এগিয়ে নেয়া সম্ভব হবে, বলে মনে করেন প্রধানমন্ত্রী।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author