দেশের প্রতি উপজেলায় হচ্ছে মহিলা সমবায় সমিতি

ডিসেম্বরের মধ্যে প্রতিটি উপজেলায় মহিলা সমবায় সমিতি করার ঘোষণা দিয়েছেন পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য।

সোমবার (৯ আগস্ট) দুপুরে মন্ত্রণালয়ে এক মতবিনিময় সভায় তিনি জানান, দেশ স্বাধীনের পর, অর্থনৈতিক মুক্তির লক্ষ্যে সমবায়ের প্রতি বিশেষ গুরুত্ব দিয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। কিন্তু ১৫ আগস্ট তাকে সপরিবারে হত্যার পর তা থমকে যায়।

প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, বঙ্গমাতা জাতির মুক্তির জন্য এক অদৃশ্য শক্তি হিসেবে মুক্তিযুদ্ধে উজ্জীবিত করেছেন, নেপথ্যে থেকে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। আমৃত্যু জীবনসঙ্গী হিসেবে পরম মমতায় বঙ্গবন্ধুকে আগলে রেখেছেন এই মহীয়সী নারী। বাঙালি জাতির সুদীর্ঘ স্বাধিকার আন্দোলনের প্রতিটি পদক্ষেপে তিনি বঙ্গবন্ধুকে সক্রিয় সহযোগিতা করেছেন। তার অবদান স্মরণীয় করে রাখতে পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ এই মহতী উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

স্বপন ভট্টাচার্য্য বলেন, স্বাধীন বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু সমবায়কে সংবিধানের মালিকানার দ্বিতীয় খাত হিসেবে স্বীকৃতি প্রদান করেন। বঙ্গবন্ধু চেয়েছিলেন গ্রামে গ্রামে বহুমুখী সমবায় প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলে গ্রামীণ জনগোষ্ঠীকে অর্থনৈতিকভাবে স্বনির্ভর করে গড়ে তুলতে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বে অর্থনৈতিক স্বনির্ভরতার সেই অসমাপ্ত কাজটি বাস্তবায়িত হচ্ছে।

৯১তম জন্মবার্ষিকীতে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছাকে স্মরণ করে, ৭১ সদস্য বিশিষ্ট বঙ্গমাতা মহিলা সমবায় সমিতি করা হবে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author