হ্রাস পাচ্ছে মানুষের শ্রবণশক্তি

কথা শেখার বয়সেই নীরব ঘাতক শব্দ দূষণের শিকার হচ্ছে শিশুরা। এতে হ্রাস পাচ্ছে শ্রবণশক্তি। এ কারণে কথা বলতে না পারার পাশাপাশি অনেক ক্ষেত্রে বুদ্ধিপ্রতিবন্ধি হয়ে উঠছে শিশুরা। এর বেশি প্রভাব পড়ছে রাজধানীতে। এসব তথ্য চিকিৎসকদের। আর শব্দ দূষন কমাতে সচেতনতার ওপর জোর দিলো পরিবেশ অধিদপ্তর।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার তথ্যমতে ৬০ ডেসিবেল বা মাত্রার শব্দে মানুষের সাময়িক শ্রবনশক্তি নষ্ট হতে পারে। আর ১০০ ডেসিবলে চিরতরে হারাতে পারে শ্রবন শক্তি। অথচ রাজধানী ঢাকাতে সৃষ্টি হচ্ছে ১৩০ ডেসিবল পর্যন্ত।

যানবাহনে হাইড্রলিক হর্ণ ছাড়াও প্রেসার কুকার, ব্লেন্ডার, মোবাইলের রিংটোনের উচ্চমাত্রার শব্দের প্রভাবও পড়ছে শিশুদের ওপর।

শব্দ দূষন রোধে এলাকা ভিত্তিক নানা নির্দেশনা থাকলেও তা না মানার প্রবনতাই বেশি, এমনটি বলছে পরিবেশ অধিদপ্তর। শব্দ দূষনের মাত্রা সহনিয় পর্যায়ে রাখতে বাড়ির আশপাশ, ছাদ ও ব্যালকনিতে বাগানের পরামর্শ বিশেষজ্ঞদের।

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment