প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগ

লালমনিরহাটের সড়ক ও জনপথ বিভাগের সাবেক উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদের বিরুদ্ধে স্ত্রী নিযার্তন ও মিথ্যা মামলা দায়েরের অভিযোগ এনেছেন তার স্ত্রী তাহেরা খাতুন। লালমনিরহাট প্রেসক্লাবে এক সাংবাদিক সম্মেলনে ওই প্রকৌশলীর বিরুদ্ধে নির্যাতন, হত্যার চেষ্টাসহ ক্ষমতার অপব্যাহারের অভিযোগ করেন তার স্ত্রী রংপুর এলজিইডি’র নগর পরিকল্পনাবিদ তাহেরা খাতুন।

প্রকৌশলী সুলতার মাহমুদ বর্তমানে পাবনা-২ অঞ্চলে সড়ক ও জনপথ বিভাগে উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী পদে কর্মরত আছেন। তাহেরা খাতুন লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলার দোলাপাড়া গ্রামের আব্দুল লতিফের মেয়ে।

সাংবাদিক সম্মেলনে নগর পরিকল্পনাবিদ তাহেরা খাতুন অভিযোগ করেন, গত বছরের ২৬ অক্টোম্বর ওই প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদের সাথে লালমনিরহাট থানা পাড়া কাজী অফিসে তাদের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে তাকে শারীরিক ও মানসিক ভাবে নির্যাতন করা হয়। পাশাপাশি যৌতুক দাবী করেন তার স্¦ামী ও শ্বশুর বাড়ীর লোকজন।

এ বিষয়ে আইনী সহায়তা চেয়ে গত ৩ জানুয়ারী রংপুর নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতে তিনি একটি মামলা করেন। কিন্তু মামলা দায়েরের পর বেপরোয়া হয়ে উঠে তার স্বামী ওই উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদ। একাধিক বার তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। তার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ছাড়া মামলা প্রত্যাহারের হুমকিসহ পুরো বিষয়টি ভিন্নখাতে প্রবাহিত করতে একটি মহলের সহযোগিতায় অপচেষ্টা করা হচ্ছে।

সাংবাদিক সম্মেলন ওই এলজিইডি’র নগর পরিকল্পনাবিদ তাহেরা খাতুন আরো অভিযোগ করেন, মামলা পরিচালনার ক্ষেত্রে রংপুর নারী ও শিশু নিযার্তন আদালতের সরকারী আইনজীবি তাকে আইনী সহযোগিতা করছে না। ফলে সরকারের কাছে ন্যায্য বিচারসহ তার স্বামী ওই প্রকৌশলী সুলতান মাহমুদের শাস্তির দাবী করেন সাংবাদিক সম্মেলনে।

 

 

 

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment