ব্যাপকভাবে স্বাস্থ্যবিমা চালু করতে হবে

ব্যাপকভাবে স্বাস্থ্যবিমা চালুর তাগিদ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দ্রুত বিমা দাবি নিষ্পত্তির পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন, দুর্নীতি ও অনিয়মের বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। তিনি বলেছেন, বিমার সুফল নিয়ে সচেতনতা সৃষ্টির ক্ষেত্রে দেশ এখনো পিছিয়েই রয়েছে।

সোমবার (১ মার্চ) সকালে গণভবন থেকে জাতীয় বিমা দিবসের অনুষ্ঠানে ভার্চুয়াল বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। টিকা নিলেও করোনা থেকে বাঁচতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে জনগণের প্রতি আহ্বানও জানান প্রধানমন্ত্রী। এ সময়, দেশে স্বাস্থ্য বিমা আরো ব্যাপকভাবে চালু করা উচিত বলেও জানান শেখ হাসিনা।

বিমাখাতের উন্নয়নে সরকারের নানা পদক্ষেপের অংশ হিসেবে দেশে দ্বিতীয়বারের মতো পালন করা হচ্ছে জাতীয় বিমা দিবস। ১৯৬০ সালের এইদিনে বঙ্গবন্ধুর আলফা ইন্সুরেন্স কোম্পানিতে যোগদানের দিনটি স্মরণে রাখতে দিবসটি পালন করছে সরকার।

‘মুজিববর্ষের অঙ্গীকার, ‘বিমা হোক সবার’ প্রতিপাদ্যে দেশে দ্বিতীয় বারের মতো উদযাপন হচ্ছে জাতীয় বিমা দিবস।

শিক্ষার্থীদের বিমা সুবিধার আওতায় আনতে সরকার এবছর থেকে পাইলট ভিত্তিতে বঙ্গবন্ধু শিক্ষাবিমা চালু করেছে। প্রাথমিকভাবে ৫০ হাজার শিক্ষার্থী বিমা সুবিধা পাবেন। ৪ জন শিক্ষার্থীর হাতে বঙ্গবন্ধু শিক্ষা বিমার সনদ তুলে দেন অর্থমন্ত্রী। বিশেষ অবদানের সম্মাননাও তুলে দেয়া হয় ৪ কৃতিজনকে।
এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিমার ওপর মানুষের আস্থা তৈরির উদ্যোগ নিতে হবে। প্রয়োজন স্বাস্থ্যবিমা চালু করা।

বিমা দাবি নিষ্পন্ন বিষয়ক বিশেষজ্ঞ বা অ্যাকচুয়ারি তৈরি করতে উচ্চশিক্ষার জন্য সরকার শিক্ষার্থীদের বিশেষ উদ্যোগে যুক্তরাজ্যে পাঠাবে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী। এই খাতের দুর্নীতি ও প্রতারণা বন্ধে সতর্ক থাকার আহ্বান জানান সরকার প্রধান।

এ সময় বঙ্গবন্ধু শিক্ষা বিমার উদ্বোধন করে করোনার টিকা নেয়ার পরও স্বাস্থ্য সুরক্ষা মেনে চলার আহবান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author