দেশে বেড়েই চলেছে ধর্ষণ

দেশে আশংকাজনক হারে বেড়েছে ধর্ষণ। এর শিকার বেশির ভাগই শিশু।  পাঁচ বছরে এ সংখ্যা প্রায় সাড়ে ৪ হাজার। আর ধর্ষণের পর হত্যার শিকার হয়েছে সাড়ে ৩শ’ জন। বিভিন্ন পরিসংখ্যানে সাম্প্রতিক সময়ে অপরাধের মাত্রা বেড়েছে প্রায় দুইশ শতাংশ। এজন্যে মাদক ও পর্নোগ্রাফির অবাধ ব্যবহার,নৈতিক অবক্ষয়ের পাশাপাশি ন্যায় বিচার না পাওয়াকে দায়ী করছেন বিশ্লেষকরা।

29014_a

পত্রিকার পাতা কিংবা টেলিভিশনের পর্দায়,প্রায়দিনই ফুটে উঠে ধর্ষণের চিত্র।শিশু থেকে বয়স্ক,এ ঘটনার শিকার হচ্ছেন প্রতিবন্ধীরাও। বিভিন্ন সংস্থার তথ্যানুযায়ি চলতি বছরের আগষ্ট পর্যন্ত ধর্ষণের শিকার হয়েছে ২৫০জন নারী, গণধর্ষণ করা হয় ৫৫ জনকে আর ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় ২০ জনকে।

একইসময়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৩৯৯ শিশু। ৫৮ শিশু হয়েছে গণধর্ষণ, আর ধর্ষনের পর হত্যা করা হয় ১৫ শিশু। এটি শুধু নজরে আসা পরিসংখ্যান। বাস্তবে সংখ্যাটা আরো বেশি, লোকলজ্জা আর অপরাধীদের ভয়ে অপ্রকাশিত থেকে যাচ্ছে অনেক ঘটনা।

এ জন্যে বিচারহীনতা, মাদকাসক্তি ও তথ্যপ্রযুক্তির অপব্যবহারকে দায়ি করছেন বিশেষজ্ঞরা। আর দোষীদের দৃষ্টামূলক শাস্তির বিকল্প নেই বলে মনে করেন মানবাধিকার কর্মী ও  আইনজীবীরা।

 

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment