চিকিৎসা বঞ্চিত খালেদা জিয়া এখন গৃহবন্দি

এক যুগেরও বেশি সময় ধরে ক্ষমতার বাইরে বিএনপি। চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া আগে ছিলেন জেলখানায় বন্দি আর এখন গৃহবন্দি – এমন মন্তব্য করে তিনি উন্নত চিকিৎসা থেকে বঞ্চিত বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি নেতারা। সরকারের নির্যাতনের কারণে গত এক যুগে আন্দোলন করতে না পারলেও, নতুন বছরে তা করে দেখানোর ঘোষণ দিয়েছেন তারা। তৃণমূল নেতাকর্মীরা অবশ্য বলছেন, ত্যাগী নেতাদের মূল্যায়ন করলেই সরকারী বিরোধী আন্দোলন জোরদার করা সম্ভব হবে।

এ সময়ে সরকারবিরোধী বা নিজেদের অস্তিত্ব জানান দিতে তেমন কোন আন্দোলনও করে দেখাতে পারেনি দলটি। এটি সংগঠনের দুর্বলতা কী-না সে প্রশ্ন ছিল তৃণমূল নেতাকর্মীদের কাছে। বিএনপি নেতা ইশরাক হোসেন স্বীকার করলেন সাংগঠনিক দুর্বলতার কথা। তুলে ধরেন সরকারের নির্যাতনের বিষয়টিও। আর দলের যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেলের আশা, নতুন বছরে গতি পাবে আন্দোলন।

এদিকে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রহুল কবির রিজভী ও যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল জানান, গণতন্ত্র পুনপ্রতিষ্ঠা না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের অভিযোগ, গণতন্ত্র ও আইনের শাসন না থাকায় খালেদা জিয়াসহ নেতাকর্মীদের উপর নির্যাতন করা হচ্ছে। সত্য ও ন্যায় প্রতিষ্ঠায় ভূমিকা রাখায় গণমাধ্যমের প্রশংসা করেন বিএনপির এ নেতা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author