বানিজ্যিক উৎপাদনে যাচ্ছে পায়রা তাপ বিদ্যুত কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিট

বানিজ্যিক উৎপাদনে যাচ্ছে
পায়রা তাপ বিদ্যুত কেন্দ্রের দ্বিতীয় ইউনিট। এর ফলে জাতীয় গ্রীডে যোগ হবে ৬৬০
মেগাওয়াট বিদ্যুত। এরইমধ্যে সব প্রস্তুতি সেরেছে কর্তৃপক্ষ। এর আগে চলতি
বছরের ৬ সেপ্টেম্বর প্রথম ইউনিট থেকে ৬৬০ মেগাওয়াট বিদুৎ জাতীয় গ্রীডে সরবরাহ শুরু
হয়।

পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় পায়রা তাপ বিদ্যুত কেন্দ্রের প্রথম ইউনিটের পরীক্ষামূলক উৎপাদন কার্যক্রম শুরু হয় ২৬ আগস্ট।  সে ইউনিট থেকে ৬ সেপ্টেম্বর ৬৬০ মেগাওয়াট বিদুৎ জাতীয় গ্রীডে সরবরাহ শুরু হয়। অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে পিডিবির সঙ্গে ক্যাপাসিটি টেস্টের সফলতার মধ্য দিয়ে, দ্বিতীয় ইউনিট থেকে ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রীডে সরবরাহ করতে প্রস্তুত কর্তৃপক্ষ। এর ফলে জাতীয় গ্রীডে এ কেন্দ্র থেকে ১হাজার ৩২০ মেগাওয়াট বিদুৎ যোগ হবে।

এই কেন্দ্র থেকে উৎপাদিত বিদ্যুৎ প্রথমে যাবে গোপালগঞ্জে। তারপর সেখান থেকে দেশের অন্যান্য জেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে। আলট্রা সুপার ক্রিটিক্যাল প্রযুক্তিতে নির্মাণ করা হয়েছে পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্র। গত ১৩ জানুয়ারি পায়রা তাপ বিদ্যুৎকেন্দ্রের এই প্রথম ইউনিট পরীক্ষামূলকভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু করা হয়।

দেশের বৃহত্তম কয়লা ভিত্তিক
বিদ্যুৎ উৎপাদনে প্রতি দিন প্রায় ১৩ হাজার টন কয়লা পোড়ানো হচ্ছে। উৎপাদন স্বাভাবিক
রাখতে কয়লার সরবরাহ নিশ্চিতে নৌপথ সচল রাখার অনুরোধ জানান প্রকল্প পরিচালক।

নর্থ-ওয়েস্ট পাওয়ার জেনারেশন
কোম্পানি এবং চায়না সিএমসির ২ দশমিক ৪ বিলিয়ন ডলারের বিদ্যুৎ প্রকল্পটিতে বাংলাদেশ
ও চীনের সমান অংশীদারিত্ব।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author