বিশ্বে করোনায় মৃত্যু প্রায় ৯ লাখ ৫৭ হাজার

বিশ্বে নতুন করে ৩ লাখ ১৪ হাজার ৭৫২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে মোট আক্রান্ত তিন কোটি ৭ লক্ষাধিক। প্রাণ গেছে ৯ লাখ ৫৬ হাজার ৫শ’ মানুষের। আর সুস্থ হয়েছে অন্তত ২ কোটি ২৩ লাখ ৪৩ হাজার মানুষ।

ভারতে করোনায় আক্রান্ত সংখ্যা ৫৩ লাখের বেশি। অন্যদিকে, ইউরোপে আক্রান্তের সংখ্যা আশঙ্কাজনক হারে বাড়ছে বলে সতর্ক করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থ্যা। এছাড়া সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার অঙ্গীকার করেছে ফ্রান্স ও জার্মানি।

এখন পর্যন্ত করোনায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।
যেখানে ভাইরাসটির শিকার ৬৮ লাখ ৭৪ হাজারের বেশি মানুষ। এর মধ্যে না ফেরার
দেশে ২ লাখ ২ হাজার ২১৩ জন ভুক্তভোগী।

সংক্রমণে দুইয়ে থাকা দক্ষিণ এশিয়ার দেশ ভারতে গত একদিনেই ৯৬ হাজারের
বেশি মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এতে করে আক্রান্তের সংখ্যা ৫২ লাখ ১৩
হাজার ছুঁই ছুঁই। প্রাণহানি বেড়ে ৮৪ হাজার ৪০৪ জনে ঠেকেছে।

তৃতীয় সর্বোচ্চ করোনাক্রান্ত দেশ ব্রাজিলে সংক্রমিতের সংখ্যা বেড়ে ৪৪
লাখ ৫৭ হাজারের বেশি। প্রাণহানি বেড়ে ১ লাখ ৩৫ হাজার ৩১ জনে দাঁড়িয়েছে।রাশিয়ায় সংক্রমিতের সংখ্যা ১০ লাখ ৮৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। বিশ্বের
দ্বিতীয় বৃহত্তম দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১৯ হাজার ৬১ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে
করোনায়।

পেরুতে আক্রান্ত সাড়ে ৭ লাখের বেশি। এর মধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন ৩১ হাজার ১৪৬ জন। কলম্বিয়ায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৭ লাখ ৪৪ হাজারের কাছাকছি। এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ২৩ হাজার ৬৬৫ জনের। উত্তর আমেরিকার দেশ মেক্সিকোয় আক্রান্ত ৬ লাখ ৮৪ হাজারের বেশ। এখন পর্যন্ত সেখানে প্রাণ গেছে ৭২ হাজার ১৭৯ জন মানুষের। আফ্রিকার দেশ দক্ষিণ আফ্রিকায় সংক্রমিতের সংখ্যা ৬ লাখ ৫৫ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। আর মৃত্যু হয়েছে ১৫ হাজার ৭৭২ জনের।

গুয়েতামালার প্রেসিডেন্ট ও সংস্কৃতিমন্ত্রী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। নিয়ন্ত্রণে আসা স্পেনে আক্রান্তের ৬ লাখ ২৫ হাজার পেরিয়েছে। প্রাণ গেছে সেখানে ৩০ হাজার ৪০৫ জনের। আর্জেন্টিনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬ লাখ ২ হাজার ছুঁই ছুঁই। প্রাণ হারিয়েছেন ১২ হাজার ৪৬০ জন ভুক্তভোগী।

চিলিতে করোনা হানা দিয়েছে ৪ লাখ ৪১ হাজারের বেশি মানুষের দেহে। এর মধ্যে
১২ হাজার ১৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফ্রান্সে করোনার ভুক্তভোগী ৪ লাখ ১৩
হাজারের অধিক মানুষ। এর মধ্যে প্রাণ গেছে ৩১ হাজার ৯৫ জনের।

মধ্যপ্রাচ্যের ইসলামী প্রজাতান্ত্রিক দেশ ইরানে করোনার শিকার ৪ লাখ ১৩ হাজারের বেশি। প্রাণহানি ঘটেছে ২৩ হাজার ৮০৮ জনের। যুক্তরাজ্যে সংক্রমিতের সংখ্যা ৩ লাখ ৮১ হাজার ছাড়িয়েছে। যেখানে মৃত্যু হয়েছে ৪১ হাজার ৭০৫ জনের।

গত বছরের ডিসেম্বরের শেষের দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম মানবদেহে করোনা ভাইরাস শনাক্ত হয়। এরপর দেশটিতে এ ভাইরাসে অস্বাভাবিকভাবে প্রাণহানি ঘটে। এরপরই চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইউরোপের দেশগুলোতে সংক্রমণ মাত্রা ছাড়ায়। যেখানে কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসলেও উত্তর ও দক্ষিণ আমেরিকার দেশগুলোতে এখনও ক্রমশ বেড়েই চলছে প্রাণহানি। আর ১১ মার্চ করোনাকে মহামারী ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

অন্যদিকে, ২০২১ সালের এপ্রিলের মধ্যে প্রতিটি মার্কিন  নাগরিক করোনার ভ্যাকসিন পাবেন বলে জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এছাড়া যুক্তরাজ্যে করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় তরঙ্গ চলছে বলে জানিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author