শাহজালাল বিমান বন্দরে ভাসমান ব্যবসায়ীদের দৌরাত্ম্য

হকারের যন্ত্রণায় ব্যবসা করতে পারছেন না হযরত শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দরের বৈধ ব্যবসায়ীরা। জানা যায় নিরাপত্তা রক্ষীদের ম্যানেজ করে ফুটপাতসহ বিভিন্ন স্থানে ভাসমান হোটেল খুলে বসেছে হকাররা। যদিও মাঝে মধ্যে সিভিল এ্যাভিয়েশন কর্তৃপক্ষ অভিযান চালায় কিন্তু তাতে কাজের কাজা কিছুই হয় না। চোখের পলকেই আবারও হাজির হয় তারা।

নিরাপত্তার স্বার্থে হযরত শাহজালাল আর্ন্তজাতিক বিমানবন্দর চত্ত্বরে হকার বা ভাসমান দোকান না বসার ব্যাপারে কড়া নির্দেশনা ও নিষেধাজ্ঞা আছে। প্রতিটি প্রবেশপথে আছে কড়া নজরদারি। তারপরও ফুটপাতের এখানে সেখানে বছর জুড়ে বসানো হয় বেশ কয়েকটি টং দোকান। এমনকি কাস্টমস হাউজের সামনের সড়কের ফুটপাতেও বসানো হয় টং দোকান। শুধু টং দোকানেই শেষ নয় সড়কের মধ্যে অবৈধভাবে গাড়ি পার্কিংয়ের যন্ত্রণাও আছে। আবার পাশেই অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে ভাসমান খাবার হোটেল।

পরিস্থিতি এমন যে, যারা সিভিল অ্যাভিয়েশন থেকে বৈধভাবে লিজ নিয়ছে হোটেল ব্যবসা করার জন্য ভাসমান দোকানিদের কারণে লাটে উঠেছে তাদের ব্যবসা। এ অবস্থায় বেধ ব্যবসায়ীরা জানালেন ভাসমান হকারদের উচ্ছেদে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হবে।

প্রশ্ন থেকে যায় কীভাবে এবং কাকে ম্যানেজ করে অবেধভাবে ভেতরে ঢুকে ব্যবসা করছেন ভাসমান দোকানিরা।

আর তদন্ত করে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানালেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের অতিরিক্ত সচিব মিজানুর রহমান।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author