মান বাঁচাতে লড়ছে টাইগাররা

সিরিজের প্রথম টেস্টে বাংলাদেশের বিপক্ষে ২৩০ রানের লিড নিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে তৃতীয় দিন শেষ করেছে স্বাগতিক দক্ষিণ অফ্রিকা। হাতে রয়েছে আরো ৮ উইকেট। ফলো অন এড়ানো গেলেও মুশফিকদের নিশ্চয়ই প্রথম ইনিংসে স্কোরটা বড় না হওয়ার অতৃপ্তি। এরআগে, প্রথম ইনিংসে ৩২০ রানে অলআউট হয় সফরকারী বাংলাদেশ। বাংলাদেশ এলোমেলো হয়েছে চা বিরতির ঠিক আগের ৫ ওভারে। এই সময়ে ১৩ রানের মধ্যে পড়েছে তিন উইকেট।
৩০৮/৮ স্কোর নিয়ে চা বিরতিতে যাওয়া বাংলাদেশের অলআউট হওয়া সময়ের ব্যাপার মনে হচ্ছিল। হয়েছেও তা–ই।

চা বিরতির পর ১৯ বলে ১২ রান যোগ করে অলআউট ৩২০ রানে। পচেফস্ট্রুম টেস্ট শুরুই হয়েছে বাংলাদেশকে চমকে দিয়ে! দক্ষিণ আফ্রিকার প্রচলিত বাউন্সি ও গতিময় উইকেট নয়, পচেফস্ট্রুমে খেলা হচ্ছে ফ্ল্যাট উইকেটে! দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে প্রোটিয়াদের বিপক্ষে ন্যাড়া উইকেটে খেলার অভিজ্ঞতা আগে আছে কি না সেটি বলা কঠিন হলেও এটা নিশ্চিত, এই প্রথম দক্ষিণ আফ্রিকায় ইনিংস ব্যবধানে হারতে হচ্ছে না বাংলাদেশকে।

112

বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো দক্ষিণ আফ্রিকায় ৩০০ রান করল। ২০১৫ সালের জুলাইয়ে চট্টগ্রাম টেস্টের প্রথম ইনিংসে ৩২৬ করেছিল বাংলাদেশ, প্রোটিয়াদের বিপক্ষে বাংলাদেশের যেটি সর্বোচ্চ। সেটি ছাড়িয়ে যাওয়ার সুযোগ মুশফিকদের সামনে।
কাল চা বিরতির পর দক্ষিণ আফ্রিকা ইনিংস ঘোষণা করলে ওপেনিংয়ে নামতে পারেননি তামিম ইকবাল। কেন পারেননি, নিশ্চয়ই জেনেছেন। তামিম চা বিরতির আগে ৪৯ মিনিট ছিলেন মাঠের বাইরে। নিয়ম অনুযায়ী তামিম যতক্ষণ মাঠের বাইরে ছিলেন, ঠিক ততক্ষণ তিনি ব্যাটিংয়ে নামতে পারবেন না। তামিম এই নিয়মের প্রথম ‘ভুক্তভোগী’ নন। তবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে প্রথমবারের মতো তাঁকে নামতে হয়েছে মিডল অর্ডারে।
বাংলাদেশ আরও একটি প্রথম দেখেছে এই টেস্টে।

পচেফস্ট্রমে ৩ উইকেটে ১২৭ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করে বাংলাদেশ, ব্যক্তিগত ৩৯ রানে সাজঘরে ফেরেন তামিম। আর ৭৭ রানে আউট হন মোমিনুল। মাহমুদুল্লাহ ৬৬ রানে সাজঘরে ফিরলে, বাকিদের আসা-যাওয়ায় ৩২০ রানে গুটিয়ে যায় বাংলাদেশ।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment