রোহিঙ্গা ইস্যুতে জাতিসংঘে বৈঠক

রোহিঙ্গা ইস্যুতে আজ  বৈঠকে বসছে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ। মিয়ানমারে চলমান সহিংসতা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন ও ফ্রান্সসহ ৭ দেশের অনুরোধে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। বৈঠকে মিয়ানমার পরিস্থিতি নিয়ে জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেসের বক্তব্য রাখার কথা রয়েছে। এদিকে, রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর জঘন্যভাবে যৌন নির্যাতন চালানো হয়েছে বলে দাবি করেছে আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থা, আইওএম। এক বিবৃতিতে এ বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন সংস্থাটির মহাপরিচালক উইলিয়াম ল্যাসি। অন্যদিকে, রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর চলমান নির্যাতন বন্ধে অং সান সু চি’র হস্তক্ষেপ চাইলেন ব্রিটেনের বিরোধী দলীয় নেতা জেরেমি করবিন। বুধবার ব্রাইটনে নিজ দল লেবার পার্টির এক সম্মেলনে দেয়া ভাষণে এ কথা বলেন তিনি।

রোহিঙ্গা ইস্যুতে গত একমাসে ২ দফা বৈঠক করে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশগুলোর প্রতিনিধিরা। এতে মিয়ানমারে সহিংসতা দ্রুত বন্ধের আহ্বান জানায় তারা। এরপরও, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের ওপর দমন-পীড়ন বন্ধ না হওয়ায় ৭ দেশের অনুরোধে বসতে যাচ্ছে  নিরাপত্তা পরিষদের জরুরী বৈঠক।

এদিকে,২৫ আগস্টের পর ৪ লাখ ৮০ হাজার রোহিঙ্গা বাংলাদেশে প্রবেশ করেছে, যাদের মধ্যে এক লাখ ৬০ হাজার নারী ও কন্যা শিশু বলে জানায় আইওএম। দেশ ছেড়ে আসার আগে এসব রোহিঙ্গা নারীদের ওপর মিয়ানমারের সেনারা বর্বর যৌন নির্যাতন চালিয়েছে বলে এক বিবৃতিতে জানান সংস্থাটির মহাপরিচালক উইলিয়াম ল্যাসি।

এদিকে, রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর চলমান নির্যাতন বন্ধে অং সান সু চি’র হস্তক্ষেপ এবং রাখাইনে জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের ত্রাণ সহায়তা প্রবেশের অনুমতি দেয়ার আহ্বান জানান ব্রিটেনের বিরোধী দলীয় নেতা জেরেমি করবিন।

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment