বৃক্ষরোপন কমাতে পারে বজ্রাঘাতে প্রাণহানি

দেশে গেল এক দশক ধরে বজ্রপাতের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় উদ্বেগ জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞ ও পরিবেশবাদিরা। বজ্রপাতের কারণ হিসেবে গাছপালা  ও বজ্রনিরোধকের সংখ্যা কমে যাওয়াকে দায়ী করছেন তারা। বজ্রাঘাতে প্রাণহানি ও ক্ষতি কমাতে বেশি করে বৃক্ষরোপন ও সচেতনতা বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন তারা।

গেল কয়েক
বছর ধরে দেশে বেড়ে গেছে বজ্রাঘাতে মৃত্যুর সংখ্যা। দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ
মন্ত্রণালয়ের হিসাব মতে ২০১০ থেকে ২০১৯- এই এক দশকে দেশে বজ্রাঘাতে প্রাণ গেছে ২
হাজার ৮১ জন মানুষের। সবচেয়ে বেশি প্রাণহানি
হয়েছে ২০১৮ সালে- ৩৫৯ জন।

বজ্রপাত
এমনই একটি প্রাকৃতিক দুর্যোগ যা মোকাবেলার সহজ কোন পন্থা নেই। তবে বজ্রের আঘাতে
প্রাণহানি কমাতে বিজ্ঞানসম্মত কিছু পদক্ষেপ নেয়ার উপায় আছে।

বজ্রপাতে
সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হচ্ছে গ্রামাঞ্চলে। বিশেষ করে ক্ষেতেখামারে যারা কাজ করেন,
তারাই মরছেন অকাতরে। তাই কৃষি জমির আশপাশে বজ্ররোধের কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে
হবে।

তাপমাত্রা
ওঠানামার সঙ্গেও বজ্রপাত কমবেশি হওয়ার একটা যোগসূত্র আছে। তাই উষ্ণতা ও বজ্রাপাত
কমাতে বনাঞ্চল রক্ষার পাশাপাশি বেশি করে বৃক্ষরোপনের তাগিদ দিয়েছেন গবেষকরা।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author