শক্ত প্রতিপক্ষের সামনে বদলে যাওয়া বাংলাদেশ

প্রায় দশ বছর পর টেস্ট সিরিজ খেলতে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে বাংলাদেশ। হিসেবে নিকেষের খাতায় বাংলাদেশের অবস্থান নড়বড়ে হলেও, বদলে যাওয়া বাংলাদেশের দৃষ্টিতে এবার অন্যরকম ফলাফল। যদিও দলে নেই বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

দু’দলের ১০বারের মুখোমুখিতে ৭টিতেই বাংলাদেশের ইনিংস পরাজয়। শেষ দু’টি টেস্টে ড্র’য়ের স্বাদ পেলেও, তাতে বৃষ্টির ভূমিকাই ছিল সবচেয়ে বেশি। মুখোমুখি এই পরিসংখ্যানের ১৮টি ইনিংসে টাইগার ব্যাটসম্যানদের সবচেয়ে বড় সাফল্য ১৩টি অর্ধশতক। যেখানে প্রোটিয়ারা করেছেন ৪টি ডাবলসহ মোট ১৩টি সেঞ্চুরি। এদের মধ্যে বর্তমান প্রোটিয়া দলে আছেন কেবল হাশিম আমলা।

পঞ্চাশোর্ধ ইনিংস খেলা বাংলাদেশের ১০ ব্যাটসম্যানের, ৬জনই নেই এই দলে। বর্তমান দলের মধ্যে এই সুখ স্মৃতি আছে কেবল দু’টি অর্ধশতক করা মুশফিক এবং একটি করে অর্ধশতক করা তামিম, মাহমুদুল্লাহ ও লিটনের। প্রোটিয়াদের বিপক্ষে টাইগারদের সেরা পারফর্মেন্স হাবিবুল বাশারের ৭৫ রান।

প্রোটিয়া বধে খুব বেশি ভূমিকা রাখতে পারেনি টাইগার বোলাররা। তাদের ১১টি ইনিংসে অলআউট করেছে কেবল ৫বার। সবচেয়ে বেশি উইকেট পাওয়া তিন বোলারের কেউই নেই এই সিরিজে।

৫ ইনিংসে সবচেয়ে বেশি ১৫টি উইকেট নেয়া শাহাদাত হোসেন আছেন দলের বাইরে। ৭ ইনিংসে ১৩ উইকেট নেয়া বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান বিশ্রামে। আর ১২ উইকেট পাওয়া মোহাম্মদ রফিক এখন সাবেকের তালিকায়। উল্টো দিকে, বাংলাদেশের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ৩৫টি উইকেট নেয়া এনটিনি, ২৮টি উইকেট নেয়া স্টেইন ও ১৭টি উইকেট নেয়া ক্যালিসও নেই প্রোটিয়া দলে।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment