রংপুরে শুরু হয়েছে মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা শোধনাগার

রংপুর সিটি কর্পোরেশন
পরিচ্ছন্ন ও জীবানু মুক্ত রাখতে শুরু হয়েছে মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা। মানববর্জ্য
থেকে জৈবসার তৈরির শোধনাগারও চালু হয়েছে। তবে প্রকল্প অকার্যকর হওয়ায় বর্জ্য ডাম্পিংয়ের নতুন
স্থানে পশু-পাখির উপদ্রব ও পরিবেশ দূষনে দূর্ভোগে পড়েছে এলাকাবাসি।

২০৭ বর্গকিলোমিটার আয়তনের রংপুর সিটি কর্পোরেশন। ৩৩ ওয়ার্ডে বসবাস প্রায় ১০
লাখ মানুষের। প্রতিদিন ২০ থেকে ২৫ হাজার মেট্রিক টন বর্জ্য নগরের পরিচ্ছন্নতার বড়
হুমকি। যেখানে সেখানে ময়লা আবর্জনা ডাম্পিং করায় পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি হয়ে পড়েছে। তবে এক বছর আগে নাচনিয়ায়
বর্জ্য ডাম্পিং ও বর্জ্য থেকে জৈব সার উৎপাদন কার্যক্রম শুরু করে সিটি করপোরেশন। এ কার্যক্রম
অকার্যকর হওয়ায় পরিবেশ দূষন ও জনস্বাস্থ্যে বিরুপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়।

অপচনশিল মিক্সড
বর্জ্য পৃথক না করার কারনে গোবর,তামাকের গদ্দা ও মুরগির বিস্টা দিয়ে
তৈরি হচ্ছে জৈবসার। সম্প্রতি গড়ে উঠেছে মেডিকেল বর্জ্য ব্যবস্থাপনা ও মানব বর্জ্য শোধনাগার।
জৈবসার প্রকল্প অকার্যকর হওয়ার কথা স্বীকার করেন মেয়র ও প্রধান নির্বাহি কর্মকর্তা।
স্থায়িভাবে টেকসই ও পরিবেশ সম্মত বর্জ্য ব্যবস্থাপনার পরিকল্পনার কথাও জানান সিটি মেয়র।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author