নাটোরে লিচুর বাজারে করোনার প্রভাব

করোনার প্রভাব পড়েছে নাটোরের গুরুদাসপুরের লিচুর বাজারে। ভাল ফলন হলেও বিক্রি নিয়ে বিপাকে চাষী ও ব্যবসায়ীরা। সঠিক সময়ে লিচু বিক্রি করতে না পারলে সর্বশান্ত হয়ে পড়ার আশঙ্কা করছেন তারা। তবে সবধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দিলেন প্রশাসন ও কৃষিবিভাগ।

নাটোরের গুরুাসপুর উপজেলা জুড়ে কিয়েকশ লিচু বাগান। এবার ৪১০ হেক্টর জমিতে লিচুর আবাদ হয়েছে। রসালো মধুফলটি এখন ঝুলছে গাছে গাছে। উপজেলার বেড়গঙ্গারামপুর,মাহমুদপুর, মোল্লাবাজার, হামলাইকোল সহ বিভিন্ন গ্রামে এখন কেবল লিচুর গন্ধ।

চাষিরা বলছেন, আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় এবার লিচুর বাম্পার ফলন হয়েছে। কিন্তু করোনার কারনে অন্য জেলা থেকে মহাজন,বেপারী ও ফড়িয়া না আসায় চিন্তার মধ্যে বাগানীরা। লিচুর বাগানকে ঘিরে ২০০১ সালে কানু মোল্লার বটতলায় গড়ে উঠে বেশ কয়েকটি আড়ৎ। করোনার কারণে এখন পযর্ন্ত পাইকাররা না আসায় চিন্তায় আছেন আড়ৎ মালিকরা। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জানান, আগামী ১০ মের পরেই বাজারে লিচু উঠতে
শুরু করবে।

৫শ’ লিচু বাগানের চাষী ও শ্রমিকদের করোনা ভাইরাস সচেনতায় পাশাপাশি সংক্রমন রোধে স্বাস্থ্যসেবার আশ্বাস দেন
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।এবার উপজেলায় ৪১০ হেক্টর জমিতে লিচুর আবাদ হয়েছে। আবহাওয়া অনুকুলে থাকায় ফলনও হয়েছে বেশ ভালো।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author