ইলিশে সয়লাব বরিশাল, পটুয়াখালী ও বরগুনার পাইকারি বাজার

ইলিশে সয়লাব বরিশাল, পটুয়াখালী ও বরগুনার পাইকারি বাজার। সারাদিন চলছে কেনাবেচা। খুশি বিক্রেতারা। তবে সরবরাহ অনুসারে দাম না কমার অভিযোগ ক্রেতাদের। এদিকে উৎপাদন আরও বাড়াতে সরকারী নির্দেশ মেনে চলার পরামর্শ দিয়েছে মৎস্য বিভাগ। আর প্রজনন মৌসুমে ১ অক্টোবর থেকে ২২দিন ইলিশ ধরা, মওজুদ ও বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে সরকার।

সকাল থেকে দুপুর আর বিকেল থেকে ভোররাত। পাইকারদের হাক-ডাকে এখন মুখর উপকূলের ইলিশের পাইকারি বাজারগুলো। সাগর থেকে ইলিশ বোঝাই ট্রলার আসছে। মাছ নামিয়ে আবার চলে যাচ্ছে। এক সপ্তাহ ধরে এই জমজমাট অবস্থা। বরগুনা, পটুয়াখালী ও বরিশালের বিভিন্ন পাইকারি বাজারে এখন ইলিশের ছড়াছড়ি।

প্রচুর ইলিশ ধরা পড়ায় খুশি জেলে, পাইকার ও আড়তদাররা। গেল বছরের লোকসান ঘুছিয়ে নেয়ার লক্ষ্য তাদের। তবে সরবরাহ অনুসারে দাম বেশির অভিযোগ ক্রেতাদের, আর আড়তদাররা বলছেন ভিন্ন কথা।

মোকামে আসা মাছগুলোর বেশিরভাগই সমুদ্র থেকে সংগৃহীত। ভরা মৌসুম হওয়া সত্ত্বেও নদ-নদী থেকে মাছ না মেলায় শঙ্কিত সংশ্লিষ্টরা।

এদিকে ইলিশের উৎপাদন বাড়াতে আগামী ১ থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত প্রধান প্রজনন মৌসুমে মোট ২২দিন ইলিশ ধরা ও বিক্রি নিষিদ্ধ করেছে সরকার।

 

 

 

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author

Leave a comment