করোনায় বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা ১৬ হাজার ৫শ ছাড়িয়েছে

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে বিশ্বজুড়ে
মৃতের সংখ্যা ১৬ হাজার ৫শ
ছাড়িয়েছে। মোট আক্রান্ত
হয়েছে তিন লাখ ৬৬ হাজার
৯৫৬। ইতালিতে মৃতের
সংখ্যা ৬ হাজার ৭৭, স্পেনে
২ হাজার ২০৬ এবং যুক্তরাজ্যে
৩৩৫ জন। পরিস্থিতি
মোকাবেলায় সারাদেশে তিন সপ্তাহের
লকডাউন ঘোষণা করেছেন ব্রিটিশ
প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন।

জরিপ পর্যালোচনাকারী সংস্থা ওয়ার্ল্ড ওমিটারের তথ্যমতে,করোনায়
এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি
চীনে ৮১ হাজার ৯৩ জন আক্রান্ত
হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে
৩ হাজার ২৭০ জনের। তবে প্রাণহানির
হিসেবে চীনকে ছাড়িয়ে গেছে
ইতালি। দেশটিতে এখন পর্যন্ত
মারা গেছে ৬ হাজার
৭৭ জন। মঙ্গলবার
নতুন করে মারা গেছে
৬০২ জন। আক্রান্তের
সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৬৩ হাজার
৯২৭।মৃতের হিসেবে
তালিকার তৃতীয় স্থানে রয়েছে
স্পেন। দেশটিতে আক্রান্তের
সংখ্যা পৌঁছেছে ৩৩ হাজার
৮৯ এ। মৃত্যু
হয়েছে দুই হাজার ২০৬ জনের।

মৃত্যুর দিক থেকে
ইরানের অবস্থান চতুর্থ। দেশটিতে
আক্রান্ত হয়েছেন ২৩ হাজার
৪৯ জন। মৃত এক হাজার
৮১২।যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত
হয়েছে ৪০ হাজার ৮৫৫ জন। এর মধ্যে ৪৮৩ জনের
মৃত্যু হয়েছে। পরিস্থিতি
মোকাবেলায় নাগরিকদের ঘরের বাইরে
না বেরোনোর আহ্বান জানিয়েছেন
প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

ভারতে আক্রান্তের
সংখ্যা ৪৬৭ জন। এর মধ্যে
৯ জনের মৃত্যু হয়েছে। বড় শহরগুলো
লকডাউন করে দেয়ায় জনমানবশূন্য
হয়ে পড়েছে রাস্তাঘাট। পাকিস্তানে
আক্রান্ত হয়েছে ৮৭৩ জন।
‍মারা গেছে ৬ জন।

বিশ্ব স্বাস্থ্য
সংস্থার প্রধান বলেছেন, বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস
আগের চেয়ে দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে
পড়ছে। সংস্থাটি জানায়, করোনায়
আক্রান্তের সংখ্যা ১জন থেকে
১ লাখে পৌঁছাতে ৬৭ দিন সময় লেগেছে। দ্বিতীয় লাখে উন্নীত হতে সময় লেগেছে
মাত্র ১১ দিন। আর তৃতীয়
এক লাখ আক্রান্ত হতে সময় লেগেছে
মাত্র ৪ দিন।

করোনা মহামারির
এ ক্রান্তিকালে বেসামরিক মানুষকে রক্ষায়
অবিলম্বে বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে
যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানিয়েছেন জাতিসংঘ
মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস। এ পর্যন্ত
বিশ্বের ১৯৫টি দেশ ও অঞ্চলে
করোনায় আক্রান্ত হয়েছে। এতে মারা
গেছে ১৬ হাজার ৫১৫ জন। চিকিৎসায় সুস্থ হয়েছেন এক লাখ এক হাজার
৬৫ জন মানুষ।

Recommend to friends
  • gplus
  • pinterest

About the Author